ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে : কাদের


90 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে : কাদের
জুলাই ৩১, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আওয়ামী লীগ ভাষণে বিশ্বাস করে না। ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, মশা মানুষের চেয়ে শক্তিশালী এমন কিছু নয় যে, এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ করা যাবে না। বিজয়ী হওয়া যাবে না। ইনশাআল্লাহ আওয়ামী লীগ ডেঙ্গুর বিরুদ্ধেও বিজয়ী হবে।

বুধবার রাজধানীর জিগাতলা মোড়ের ধানমন্ডি লেকে ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও সচেতনতা তৈরিতে আওয়ামী লীগের তিন দিনব্যাপী পরিচ্ছন্ন কর্মসূচির উদ্বোধন করে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

‘পরিষ্কার রাখি চারপাশের পরিবেশ, পরিছন্ন সমাজ-ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ’- এই স্লোগানে সারাদেশে একযোগে এই কর্মসূচি শুরু হয়েছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ভয়ঙ্কর এডিস মশা ও ডেঙ্গুর বিস্তারে আজ পুরো জাতি উদ্বিগ্ন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আওয়ামী লীগ ডেঙ্গুর বিস্তার রোধে এডিস মশা নিধনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে এগিয়ে যাচ্ছি। সারাদেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এই ভয়ঙ্কর ডেঙ্গুও মোকাবিলা করতে পারবো।

তিনি বলেন, সারাদেশের সব সিটি করপোরেশন, জেলা-উপজেলা, ইউনিয়ন এবং ওয়ার্ড পর্যায়ে তিনদিনের এই কর্মসূচি চলবে। আজ বৃষ্টিমুখর পরিবেশের মধ্যেও আওয়ামী লীগের সব নেতাই এখানে সমবেত হয়েছেন। মশক নিধন কর্মসূচি পালনে তারা এখানে অংশ নিচ্ছেন। দলের নেতাকর্মীরা ঢাকা মহানগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে এ কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন। এ কর্মসূচির মূল প্রতিপাদ্য সচেতনতা সৃষ্টি। এটি সতর্কতামূলক কর্মসূচি। সবাইকে নিজ নিজ বাসস্থান, কর্মস্থল ও আশপাশের জায়গা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। যেসব জায়গায় ডেঙ্গু মশা নিরাপদ আবাসস্থল গড়ে তোলে, সেসব জায়গা টার্গেট করে এগিয়ে যেতে হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, চিকিৎসকদের আহ্বান জানাচ্ছি, ডেঙ্গু রোগের জন্য নামমাত্র ১শ’ টাকা নিয়ে চিকিৎসা করবেন। গরিব মানুষের পক্ষে ৫শ’ কিংবা ১ হাজার টাকা দিয়ে এ রোগের জন্য রক্ত পরীক্ষা করা সম্ভব নয়। তাই চিকিৎসকদের কাছে আহ্বান জানাবো মানবতা ও দেশের স্বার্থে নামমাত্র পয়সায় কিংবা বিনা পয়সায় ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দেশের বাইরে থাকা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, কে আছে, কে নেই- এটা দেখার বিষয় নয়। কাজ হচ্ছে কি-না সেটাই দেখার বিষয়। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা কঠিন লড়াইয়ে নেমেছি। এই লড়াইয়ে জিততে হবে।

তিনি বলেন, ব্যক্তি বিশেষের কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রশ্ন না করে আসুন আমরা একযোগে কাজ করি। এটা অ্যাকশন প্রোগ্রাম। একটি কঠিন চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সবারই দায়িত্ব আছে। আসুন, আমরা একযোগে কাজ করি।

উদ্বোধনের পর নেতাকর্মীরা ধানমন্ডি লেকে ফগার মেশিন ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার জিনিসপত্র নিয়ে পরিচ্ছন্ন অভিযান শুরু করেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মতিয়া চৌধুরী, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, বি এম মোজাম্মেল হক, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, এ কে এম এনামুল হক শামীম, অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, সুজিত রায় নন্দী, দেলোয়ার হোসেন, প্রকৌশলী আব্দুস সবুর, ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, এস এম কামাল হোসেন, মারুফা আক্তার পপি, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলরাও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।