তরমুজের বীজের নানা গুণ


469 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তরমুজের বীজের নানা গুণ
এপ্রিল ২, ২০১৭ ফটো গ্যালারি স্বাস্থ্য
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
তরমুজের যেমন রয়েছে নানা গুণ তেমনি তরমুজের বীজেও রয়েছে নানা গুণ। এর বীজ খেলে হার্ট ভালো থাকে। ব্লাড সুগার নর্মাল থাকে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। বাড়বে স্মৃতিশক্তি। তবে তরমুজের বীজ যদি ফেলে দেন তাহলে অজান্তে ভুলটাই করলেন। আসল জিনিসটাই ফেলে দিলেন। আসুন জেনে নেই তরমুজ এবং বীজের গুনাগুণ-

তরমুজের গুণ:
দারুণ গরমে ফ্রিজ থেকে বের করে ঠান্ডা তরমুজে কামড় মানেই শরীর ঠান্ডা, মনও চাঙ্গা। তরমুজে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। এটি স্ট্রেস কমায়। প্রস্টেট ক্যানসার, কোলন ক্যানসার, ফুসফুসের ক্যানসার ও স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়। ওজন কমায় তরমুজ। তরমুজের ক্যারোটিনয়েড চোখ ভাল রাখে। সিট্রোলিন নামে অ্যামাইনো অ্যাসিড যৌনশক্তি বাড়ায়। এটি লিকোপেন সমৃদ্ধ খাবার। হাড়ের স্বাস্থ্য ভাল রাখে। এ তো গেল তরমুজ। কিন্তু তার বীজে আরও উপকার।

তরমুজের বীজেই লুকিয়ে জীবনীশক্তি
সারাদিনে যে পরিমাণ প্রোটিন প্রয়োজন, তার ৬০ শতাংশ পাওয়া যায় এককাপ তরমুজের বীজে। শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় নানা ধরনের অ্যামাইনো অ্যাসিড রয়েছে। ফলে, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ। করোনারি হার্ট ডিজিজের চিকিৎসার ক্ষেত্রেও এটা একটা জরুরি উপাদান।

তরমুজের বীজে ভিটামিন বি
আমেরিকার ক্যানসার সোসাইটির রিপোর্ট বলছে, খাবারকে এনার্জিতে পরিণত করে ভিটামিন বি। নিয়াসিনের মতো ভিটামিন বি স্নায়ুতন্ত্র ও পরিপাকতন্ত্রকে রক্ষণাবেক্ষণ করে।

তরমুজের বীজে মিনারেলস
তরমুজের বীজে রয়েছে প্রচুর ম্যাগনেসিয়াম। ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ হেলথের রিপোর্ট বলছে, ম্যাগনেসিয়াম ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণে রাখে।

তরমুজের বীজে ফ্যাট
এককাপ শুকনো তরমুজের দানায় ৫১ গ্রাম ফ্যাট রয়েছে। এর ১১ শতাংশ স্যাচুরেটেড ফ্যাট। বাকিটা পলিস্যাচুরেটেড, মনোস্যাচুরেটেড এবং ওমেগা ৬ ফ্যাটি অ্যাসিড। আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের রিপোর্ট বলছে, মনো ও পলিস্যাচুরেটেড ফ্যাট রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। ওমেগা ৬ ফ্যাটি অ্যাসিড উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে। ফ্যাটি অ্যাসিডে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে।

তরমুজের বীজে আয়রন
প্রোটিন তো বটেই, তরমুজের বীজে রয়েছে প্রচুর আয়রন। চুলের শক্তি বাড়ায়। চুল পড়া কমায়। চুল পাতলা হয় না, শুকনো হয় না। একটি পাত্রে একমুঠো তরমুজের বীজ নিয়ে ৭৫০ মিলিগ্রাম পানি দিয়ে অল্প আঁচে ৪৫ মিনিট ফুটিয়ে ঢেকে রাখতে হবে। ঠান্ডা হলে সেই জল খাওয়া যেতে পারে। প্রতিদিন খেলে ডায়াবেটিস কমবে। তরমুজের শুকনো বীজ চায়ের সঙ্গে মিশিয়েও খাওয়া যেতে পারে।