‘তালার ইউএনও স্যারের নির্দেশে রাস্তা করেছি, আমাদের কী দোষ’


710 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
‘তালার ইউএনও স্যারের নির্দেশে রাস্তা করেছি, আমাদের কী দোষ’
মার্চ ২৫, ২০১৭ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

শেখ মাহাবুব ও আশরাফুল আলম ::
আমরা যা কিছু করেছি ইউএনও স্যারের নির্দেশেই করেছি। আমাদের কোনো দোষ নেই। বরং রেকর্ডীয় জমিতে রাস্তা বানাতে গিয়ে আমরা প্রতিপক্ষের হাতে মারও খেয়েছি।

শনিবার বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে, তালার ইউএনও’র নির্দেশে কৃষকের বাড়ি ভাংচুর, শীর্ষক খবরের প্রতিক্রিয়ায় পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করে এ কথা জানান তালার ধানদিয়া ইউনিয়েনের গ্রাম চৌকিদারগন। তারা বলেন, আমাদের ইউএনও ফরিদ হোসেন স্যার ভালো মানুষ। ইউনিয়নের কাটাখালি গ্রামের পুরাতন রাস্তা নাজুক ছিলো। তাই সবার সম্মতিতে সেটা সংস্কার করা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এই সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন গ্রাম পুলিশ আবদুল মজিদ। এসময় একই ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ সুনীল সরদার, মো. রইসউদ্দিন, অসীম সরদার, আবদুর রাজ্জাক, যোশেফ বিশ্বাস  ও আবদুল হামিদ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে তারা বলেন, কাটাখালি গ্রামের ওই রাস্তা দিয়ে  এলাকার মানুষ চলাচল করেন। পাশের মসজিদে তারা নামাজ আদায় করতে যান। রাস্তাটি খারাপ হওয়ায় তালার ইউএনও, সহকারি কমিশনার (ভূমি), চেয়ারম্যান এবং মেম্বরদের সম্মতিতে ওই রাস্তাটি সংস্কার করা হয়। এ সময় এতে বাধা দেন কামাল হোসেন, রহিম মল্লিক, আবু সাঈদ, মফিজুল, খায়রুল, মঞ্জিলা, দোস্তী খাতুন, আমিনুর, আশরাব ও মোহাম্মদ মল্লিক। আমরা গ্রাম পুলিশগন সেখানে শান্তি শৃংখলা রক্ষার চেষ্টা করি। এতে আমরা প্রতিপক্ষের হাতে মার খেয়ে আহত হই। তারা আমাদের  সরকারি  পোশাক ছিঁড়ে দেয়।

উল্লেখ্য ২৪ মার্চ দুপুরে তালার ধানদিয়া ইউনিয়নের কাটাখালি গ্রামের কৃষক আমিনুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যরা সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে অভিযোগ করেন যে তালার ইউএনও ফরিদ হোসেনের  নির্দেশে তাদের পৈত্রিক রেকর্ডীয় জমির গাছপালা কেটে ও বাড়ি ভাংচুর করে রাস্তা তৈরি করা হয়েছে। এ সময় ইউএনও তাদের কোনো কথা শুনতে চাননি। এমনকি কাগজপত্রও দেখতে চাননি। এতে বাধা দেওয়ায় তারা নারী পুরুষসহ কয়েকজন আহত হন।