তালার ইসলামকাটি সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের পুরাতন ভবন’র মাটির নিচ থেকে সিন্ধুক উদ্ধার


1372 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালার ইসলামকাটি সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের পুরাতন ভবন’র মাটির নিচ থেকে সিন্ধুক উদ্ধার
জানুয়ারি ৭, ২০১৯ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

*কৌতুহলী জনতার ভিড়

বি. এম. জুলফিকার রায়হান ::

তালা উপজেলার ইসলামকাটি সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের পুরাতন (পরিত্যাক্ত) ভবন’র মাটির নিচ থেকে ব্রিটিশ আমলের একটি লোহার সিন্ধুক উদ্ধার হয়েছে। ভবনটি অপসারন করার জন্য কাজ করাকালে সোমবার দুপুরে শ্রমিকরা সেটি উদ্ধার করে। রেজিষ্ট্রি অফিসের মাটির নিচ থেকে সিন্ধুক উদ্ধারের ঘটনায় উৎসুক জনতা সারাদিন সেখানে ভিড় জমায়।
স্থানীয় ইউপি সদস্য আসাদ মৃধা সহ একাধিক ব্যক্তি জানান, ব্রিটিশ আমলে তৈরি ইসলামকাটি সাব রেজিষ্ট্রি অফিস’র ভবনটি জরাজীর্ন হওয়ায় কর্তৃপক্ষ সেটি পরিত্যাক্ত ঘোষনা করেন। সম্প্রতি পুরাতন ওই ভবনটি অপসারন করার জন্য নিলাম হয় এবং নিলাম গ্রহিতা ভবনটি ভাঙ্গার কাজ শুরু করেন।


সোমবার দুপুরে ভবনের মধ্যেকার ভিট ও ফ্লোর ভাঙ্গার সময় মাটির নিচ থেকে লোহার তৈরি বড় আকৃতির একটি সিন্ধুক বেরিয়ে আসে। শ্রমিকদের মাধ্যমে এখবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে আশ-পাশ সহ বিভিন্ন এলাকার শত শত উৎসুক মানুষ সিন্ধুকটি দেখতে ভিড় জমায়। সিন্ধুকটির মধ্যে কি আছে- তা জানার জন্য কৌতুহলী ছিল আগত মানুষরা। তাদের ধারনা- সিন্ধুকটির মধ্যে স্বর্নালংকার অথবা স্বর্ন বা রুপার মুদ্রা বা মূল্যবান কাগজ ও জিনিসপত্র থাকতে পারে!
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি জানান, ব্রিটিশ আমলের ভবন এবং সেই সময়কার সিন্ধুক হওয়ায় সিন্ধুকের দখল নিতে ভবনের নিলাম গ্রহিতা সহ এলাকার একাধিক ব্যক্তি মরিয়া হয়ে ওঠে। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয় এবং তারা সিন্ধুকটির দরজা ভাঙ্গার চেষ্টা করে। যদিও সিন্ধুকের দরজা বিশেষ ভাবে আটকানো থাকলেও তাতে কোনও তালা লাগানো ছিলনা। এমতাবস্থায় পরিস্থিতি ঘোলাটে আকার ধারন করলে ঘটনাটি প্রশাসনকে অবহিত করা হয়। পরে তালা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে সিন্ধুকটির নিয়ন্ত্রন নেয় এবং পরিস্থিতি সামাল দেয়।
এদিকে সিন্ধুকটি উদ্ধারের খবর পেয়ে তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিয়া আফরীন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) অনিমেষ বিশ্বাস, তালা থানার ওসি মো. মেহেদী রাসেল ও ইসলামকাটি ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক সুভাষ চন্দ্র সেন এদিন সন্ধ্যায় ঘটনাস্থলে যান।
এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিয়া আফরীন জানান, সরকারি ভবন থেকে উদ্ধার হওয়া ব্রিটিশ আমলের সিন্ধুকটির মধ্যে কি আছে তা জানা যায়নি। সিন্ধুকটি সিল গালা করে নিরাপত্তার সাথে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের নিকট পাঠানো হয়েছে। সেখানে এটি খোলার পর জানা যাবে- তারমধ্যে কিছু রয়েছে কিনা।
এব্যপারে সমাজ কর্মী নারায়ন মজুমদার বলেন, সিন্দুকটির মধ্যে কিছু মূল্যবান কাগজপত্র থাকতে পারে। তবে নাম প্রকাশ না করার স্বর্তে রেজিষ্ট্রি অফিসের এক কর্মকর্তা জানান, পুরাতন ভবনে রেজিষ্ট্রির কার্যক্রম চলাকালে মাটির নিচে পুতে রাখা ওই সিন্ধুকটির সম্পর্কে অফিসের প্রায় সকল স্টাফরা জানতো। ওই সিন্ধুকটির মধ্যে কিছু নেই বলে তিনি দাবী করেন।
উল্লেখ্য, মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ব্রিটিশ আমলের তৈরি তালার ইসলামকাটি সাব রেজিষ্ট্রি অফিসটি পরিকল্পিত ভাবে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়। এতে অফিসে রক্ষিত দলিলপত্র সহ সব কিছু পুড়ে ভস্মিভূত হয়। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে একটি মহল এখনও বিভিন্ন জমির দলিল জাল করে আসছে। এমনকি ব্রিটিশ এবং পাকিস্তানী আমলের জাল দলিল তৈরির জন্য একটি সিন্ডিকেট সক্রিয় ভাবে কাজ করছে। যে কারনে এলাকাবাসী আশায় আছে- যদি ওই সিন্দুক থেকে সেই সময়কার কোনও দলিলপত্র উদ্ধার হয় তবে অনেকেই তাদের জমি জালিয়াতকারীদের কবল থেকে ফেরৎ পাবে বা ভবিষ্যতে অনেকেই তাদের জমির কাগজ জাল হওয়া থেকে রক্ষা পাবে।
##