তালার কুমিরায় ইট ভাটা দখল নিতে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড : এলাকায় আতংক !


411 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালার কুমিরায় ইট ভাটা দখল নিতে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড : এলাকায় আতংক !
নভেম্বর ২২, ২০১৮ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম. জুলফিকার রায়হান ::

সাতক্ষীরার তালা উপজেলার কুমিরা গ্রামের এম.এন.বি ব্রিকস নামের একটি ইট ভাটা দখল করার জন্য ভাটা মালিককে প্রতিনিয়ত হুমকি ও নানা ভাবে হয়রানী করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কেশবপুরের বিতর্কীত জামায়াত নেতা মঞ্জুরুল ইসলামের ছত্রছায়ায় তাঁর পোষ্য জাহিদ হোসেন ও কামরুল বিশ্বাস সহ একাধিক ব্যক্তি প্রতিনিয়ত ওই ইট ভাটায় এবং ভাটার আশপাশে মহড়া দিচ্ছে। এতে ভাটা শ্রমিক ও এলাকার মানুষের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ায় ভাটা মালিক খাইরুল ইসলাম মনু দূর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করেছেন।
ভাটা মালিক খাইরুল ইসলাম মনু জানান, তিনি দীর্ঘ বছর ধরে কুমিরা গ্রামে চাষ অযোগ্য ও পরিত্যাক্ত জমিতে এম.এন.বি ব্রিকস্ নামের একটি ইট ভাটা নিময় অনুযায়ী পরিচালনা করে আসছেন। এতে একদিকে সরকার প্রতিবছর লক্ষ লক্ষ টাকা রাজস্ব পাচ্ছে, অপরদিকে বিভিন্ন এলাকার ৩ শতাধিক শ্রমিক ভাটায় বিভিন্ন কাজ করে পরিবার-পরিজনের জীবীকা নির্বাহ করছেন। তাছাড়া চাষ অযোগ্য ও পরিত্যাক্ত জমিতে ভাটা হওয়ায় জমি মালিকরা আর্থিক ভাবে লাভবান হচ্ছে। এমতাবস্থায় তালা ও কেশবপুর উপজেলার বহুল আলোচিত মঞ্জুরুল ইসলাম এর ম্যানেজার জাহিদ সরদার এবং তালার ভাগবাহ গ্রামের রজব আলী বিশ্বাসের ছেলে কামরুল ইসলাম বিশ্বাস প্রতিনিয়ত বিভিন্ন এলাকার চিহ্নিত দূর্বৃত্ত, মাদকসেবী ও সন্ত্রাসীদের নিয়ে ইট ভাটা এলাকায় মহড়া চালিয়ে যাচ্ছে। উক্ত ইট ভাটা দখল নিতে সন্ত্রাসী মহড়া দেওয়া, মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে ভাটা পরিচালনায় বাঁধা গ্রস্থ করার চেষ্টা, ভাটা অভ্যন্তরে মাদক সেবন, ভাটা শ্রমিকদের উপর হামলা ও হুমকি দেওয়ার ঘটনায় খাইরুল ইসলাম মনু বাদী হয়ে দূর্বৃত্ত জাহিদ সরদার ও কামরুল বিশ্বাস সহ ৬জনের বিরুদ্ধে পাটকেলঘাটা থানায় একটি জিডি (৭২৪/১৮) করেছেন।
এবিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দা ও পাক্ষিক নির্ভিক সংবাদ’র সম্পাদক একরামুল হক আসাদ জানান, কুমিরা গ্রামে এম.এন.বি ব্রিকস্ দীর্ঘ বছর ধরে সফলতার সাথে পরিচালিত হচ্ছে। এরফলে প্রতিবছর সরকার ৪/৫লক্ষ টাকা রাজস্ব পাচ্ছে। তাছাড়া জমি মালিক এবং দরিদ্র ও হতদরিদ্র শত শত মানুষ আর্থিক ভাবে লাভবান হচ্ছে।
তিনি জানান, তালার ইসলামকাটী ইউনিয়নের আলোচিত চলষের বিলে মৎস্য ঘের করতে এসে গোটা এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল কেশবপুর উপজেলার মঞ্জুরুল ইসলামের নেতৃত্বে জাহিদ সরদার। সেসময় বিল পাড়ের মানুষ আতংকিত অবস্থায় থাকতো। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নারীরা নিরাপদে ঘুমাতে পারতোনা। সেই মঞ্জুরুল ও জাহিদ গং এর ছত্রছায়ায় ভাগবাহ গ্রামের কামরুল ইসলাম সহ দূর্বৃত্তরা এবার কুমিরা গ্রামে ইট ভাটা দখল করার জন্য অপচেষ্টা শুরু করায় এলাকায় নতুন করে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। এবিষয়ে অতিদ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য তিনি পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এব্যপারে জাহিদ সরদার বলেন, সবাইকে পক্ষে নিয়ে ওই ইট ভাটার মালিকানা নেবার চেষ্টা করছি। তবে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি আরো বলেন ব্যবসায়ীক প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা জিডি করা হতে পারে।

###