তালার খলিলনগর ইউপি’র একটানা ৩৬ বছরের চেয়ারম্যান আব্দুল আলী’র চীর বিদায়


118 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালার খলিলনগর ইউপি’র একটানা ৩৬ বছরের চেয়ারম্যান আব্দুল আলী’র চীর বিদায়
জুলাই ৩১, ২০২০ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি.এম. জুলফিকার রায়হান, তালা
হাজার হাজার মানুষের শোক, শ্রদ্ধা এবং ভালবাসার মধ্যদিয়ে তালা উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সভাপতি, তালা উপজেলা পরিষদ’র সাবেক চেয়ারম্যান জি.এম আব্দুল আলী’র দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৩টায় তাঁর প্রতিষ্ঠিত খলিলনগর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে জানাযা নামায শেষে নিজ গ্রাম দাশকাটির পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
এরআগে, মরহুম আব্দুল আলী’র জানাজা নামাজে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় নেতা ও সাবেক সংষদ সদস্য হাবিবুল ইসলাম হাবিব, তালা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সরদার মশিয়ার রহমান, খলিলনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান রাজু, জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম মফিদুল হক লিটু, তালা প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রভাষক প্রণব ঘোষ বাবলু, তালা মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান, উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সাংবাদিক নজরুল ইসলাম, উপজেলা বিএনপির সভাপতি মৃণাল কান্তি রায়, সাধারন সম্পাদক উপাধ্যক্ষ শফিকুল ইসলাম, খেশরা ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান এস.এম. লিয়াকত হোসেন ও উপজেলা জাতীয়যুব সংহতির সভাতি সরদার কবীর হোসেনসহ উপজেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক নেতৃবৃন্দ, সামাজিক-পেশাজীবি-সাংবাদিক সংগঠন’র নতেৃবৃন্দ এবং সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ সহ সর্বস্তরের হাজার হাজার মানুষ অংশগ্রহন করেন। এছাড়া, তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইকবাল হোসেন মরহুম’র বাড়িতে যেয়ে শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।
নির্লোভী ও সাদা মনের মানুষ জি.এম আব্দুল আলী (৮৯) দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত নানান অসুখে ভুগছিলেন। বুধবার গভীর রাতে খুলনার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধিন থাকা অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি….রাজেউন)। মৃত্যুকালে তিনি বড় ছেলে অবসরপ্রাপ্ত বীমা কর্মকর্তা জিএম সাঈদুর রহমান মুকুল, সৌদি আরবের একটি হাসপাতালে ডাক্তার হিসেবে কর্মরত ছোট ছেলে জিএম মুস্তাফিজুর রহমান বিপু, সৌদীর অন্য একটি বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরত পুত্রবধু ও একমাত্র কন্যা তাহমিনা রহমান রীতাসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন এবং শুভাকাংখি রেখে গেছেন। তাঁর মৃত্যুতে দল-মত নির্বিশেষ তালার সর্বস্তরের মানুষের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে।
জি.এম আব্দুল আলী তালা উপজেলা পরিষদ’র প্রথম নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন। তারআগে টানা ৩৬ বছর উপজেলার খলিলনগর ইউনিয়ন পরিষদ’র নির্বাচিত চেয়ারম্যান হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্বপালন করেন। এছাড়া তিনি খলিলনগর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় সহ অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান এবং সামাজিক প্রতিষ্ঠান স্থাপন করেন। বিগত ২০০১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জি.এম আব্দুল আলী জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।