তালার শালিখা গুচ্ছ গ্রামের মাতব্বরদের বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ


273 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালার শালিখা গুচ্ছ গ্রামের মাতব্বরদের বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ
আগস্ট ৩১, ২০২০ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম জুলফিকার রায়হান ::

তালার শালিখা গুচ্ছ গ্রামে সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ’র মালিকানাধিন সরকারি দু’টি নিম গাছ চুরি করে কেটে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। গুচ্ছ গ্রামের কতিপয় নেতারা এই গাছ কেটে নেয়। এবিষয়ে এলাকার মানুষ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেছেন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার একাধিক ব্যক্তি জানান, শালিখা গুচ্ছ গ্রামের বাসিন্দা মোনতাজ আলী মোড়ল’র নেতৃত্বে রাজ্জাক মোড়ল ও মহাসিন মোড়ল সহ একাধিক ব্যক্তি গুচ্ছ গ্রামের বাসিন্দাদের জিম্মি করে দীর্ঘদিন ধরে নানান অবৈধ ও অনৈতিক কাজ করে আসছে। গত শনিবার সকালে মোনতাজ মোড়লের নেতৃত্ব্ েকথিত মাতব্বররা গুচ্ছ গ্রামের পুকুরের উপর থেকে ৮/১০ হাজার টাকা দামের ২টি নিম নাম গাছ চুরি করে কেটে নেয়। এবিষয়ে এলাকার লোক প্রতিবাদ করলে তাদের হুমকি দেয়া হয় বলে অভিযোগে বলা হয়েছে।
এলাকাবাসী বলেন, সরকারের আশ্রয়ন প্রকল্পের অধিন গুচ্ছ গ্রামে বিশাল একটি পুকুর রয়েছে। তৎকালীন এরশাদ সরকার গুচ্ছ গ্রামের দরিদ্র মানুষদের উন্মুক্ত ভাবে ব্যবহারের জন্য এই পুকুরটি খনন করে দেন। অথচ মোনতাজ মোড়ল সহ তার অনুসারীরা এই পুকুরটি ইজারার কথা বলে বছরের পর বছর ধরে গ্রামের দরিদ্র মানুষদের কাছ থেকে টাকা উঠিয়ে আত্মসাৎ করছে। এছাড়া পুকুরে মৎস্য অধিদপ্তরের দেয়া ফ্রি মাছ গুচ্ছগ্রামের সব মানুষদের না দিয়ে বিক্রি করে নিচ্ছে। গুচ্ছ গ্রামের দরিদ্র মানুষদের জন্য প্রতিবছরের ন্যায় এবারের ঈদুল আযহার সময় কুরবানী করা গরুর মাংস থেকে ২৮ কেজি মাংস চুরি করে এই চক্রটি বিক্রি করে দেয় বলে এলাকার মানুষ অভিযোগ করেছেন। তাদের একের পর এক এহেন দূর্নীতি ও অনিয়মের কারনে এলাকার মানুষ ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে।
এবিষয়ে সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের সংশ্লিষ্ট এলাকার সংরক্ষিত সদস্য মাহফুজা সুলতানা রুবি বলেন, গাছ চুরির বিষয়ে জেলা পরিষদে এলাকার মানুষ একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। জেলা পরিষদ এবিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করবে।
জানতে চাইলে মোনতাজ মোড়ল বলেন, পুকুর ও গাছ আমরা নিয়ন্ত্রন করি। তালা ইউএনও অফিসের সাবেক এক কর্মচারীর নাম জানিয়ে তিনি বলেন, পুকুরের ইজারা এক সময় নেয়া হতো, এখন নেয়া হয়না। তাছাড়া ২টি নিম গাছ কাটার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, কেটে নেয়া গাছ দুটি কাজে লাগানো হয়েছে। এছাড়া তিনি অন্য সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, মাতব্বরী করাকে কেন্দ্র করে এলাকার একটি মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার চালাচ্ছে।

#