তালার সেই শিক্ষক আবুল কাশেম বরখাস্ত


774 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালার সেই শিক্ষক আবুল কাশেম বরখাস্ত
নভেম্বর ১, ২০১৮ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম. জুলফিকার রায়হান ::

নানান অভিযোগে গনমাধ্যমে বারবার শিরোনাম হওয়া তালার খলিলনগর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. আবুল কাশেম সরদারকে বরখাস্ত করা হয়েছে।
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর’র মহাপরিচালকের পক্ষে সহকারী পরিচালক (পলিসি-১) মো. সানাউল্লাহ’র অনুরোধে সাতক্ষীরা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. রুহুল আমীন গত ২৯ অক্টোবর এক অফিসিয়াল আদেশে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেন।
বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে আবুল কাশেমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, বিদ্যালয়ের উঠতি বয়সের ছাত্রীদের সাথে অশালীন আচরন, নারী ঘটিত নানান অপকর্মে জড়ানো, বিদ্যালয়ে ক্লাস ফাঁকি দেওয়া ও মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে তালা উপজেলার সাবেক প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. অহিদুল ইসলামকে ফাঁসানোর চেষ্টা সহ নানান অভিযোগ রয়েছে শিক্ষক আবুল কাশেম’র বিরুদ্ধে। এজন্য তার বিরুদ্ধে ৫টি অভিযোগের ভিত্তিতে শিক্ষা অফিস কর্তৃপক্ষ পৃথক ৫টি তদন্ত করলে প্রতিটি তদন্ত প্রমানিত হয়। এই প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে কাশেমের বিরুদ্ধে ২টি বিভাগীয় মামলা দায়ের হয়েছে। এছাড়া, অনিয়মের অভিযোগে বরখাস্ত করার সাথে শিক্ষা অধিদপ্তর বিতর্কীত শিক্ষক আবুল কাশেমের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের অনুরোধ জানানোর ফলে সাতক্ষীরা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস আরো একটি বিভাগীয় মামলা দায়ের করবে বলে সূত্র জানিয়েছে। তাছাড়া পূর্বেকার তদন্তে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় কাশেমের বিরুদ্ধে আরো দুটি বিভাগীয় মামলা দায়ের হবে বলে সূত্র জানিয়েছে। এই সকল বিভাগীয় মামলার মধ্যে নিজেই বাদী হয়ে সাবেক উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. অহিদুল ইসলাম’র বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করায় সে স্থায়ী ভাবে বরখাস্ত হতে পারে বলে জানাগেছে।
এব্যপারে তালা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. নজরুল ইসলাম (ভারপ্রাপ্ত) বৃহস্পতিবার (১ নভেম্বার) জানান, খলিলনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. আবুল কাশেম সরদারকে সাময়িক বরখাস্ত করার চিঠি ইতোমধ্যে পেয়েছি। বিভিন্ন অনিয়মের কারনে তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

##