তালায় আত্মহুতি দেয়া বিউটির বাড়িতে সাংসদ মুস্তফা লুৎফুল্লাহ : লম্পট মৃত্যুঞ্জয়’র কঠোর শাস্তি দাবী


1545 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালায় আত্মহুতি দেয়া বিউটির বাড়িতে সাংসদ মুস্তফা লুৎফুল্লাহ : লম্পট মৃত্যুঞ্জয়’র কঠোর শাস্তি দাবী
সেপ্টেম্বর ১০, ২০২০ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম. জুলফিকার রায়হান::

ফেসবুকে এডিট করা নগ্ন ছবি ছড়িয়ে দেয়ায় উপজেলার কলাগাছি গ্রামের নিতাই মন্ডলের মেধাবী মেয়ে বিউটি মন্ডল (১৬) ক্ষোভে, লজ্জায় বুধবার দুপুরে নিজ ঘরে গলাই ফাঁস দিয়ে আত্মহনন করে। এঘটনাটি প্রচার হবার পর থেকে গোটা উপজেলার সচেতন মানুষের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। সর্বস্তরের মানুষ ঘটনার নেপথ্য নায়ক (!) লম্পট মৃত্যুঞ্জয় রায়’র গ্রেফতার সহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে সোচ্ছার হয়ে উঠেছে। যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারনে বিউটির আত্মহুতি, সেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গত দু’দিন ধরে নেটিজেনরা ঘটনার তীব্র ঘৃনা প্রকাশ করছে। বিউটির প্রতি ভালবাসা প্রকাশ সহ তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানো হচ্ছে। এমনকি আর যেন এমন অনাকাঙ্খিত ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেজন্য অন্যদের সচেতনতা সৃষ্টিতে পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

বিউটি মন্ডলের অনাকাঙ্খিত মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) সংসদ সদস্য অ্যাড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ দূর্গম কলাগাছি গ্রামে যান এবং বিউটির পিতা-মাতার সাথে কথা বলে সমবেদনা প্রকাশ করেন। একই সাথে তিনি অপরাধিকে শাস্তির আওতায় আনতে সার্বিক সহযোগীতা প্রদানের আশ্বাস দেন। এসময় খেশরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান প্রভাষক রাজিব হোসেন রাজু সহ এলাকার শত শত শোকার্ত মানুষ সেখানে উপস্থিত ছিলেন। সে সময়, একদিকে বিউটির চিতার আগুন, অন্যদিকে সংসদ সদস্যকে পেয়ে এলাকার মানুষ শোকে কাতর হয়ে পড়ে।

এদিকে, শারীরিক অসুস্থ্যতার কারনে তালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার ঘটনাস্থলে যেতে না পারলেও ঘটনার নিন্দা জানিয়ে অপরাধি মৃত্যুঞ্জয়’র শাস্তি দাবী জানিয়েছেন এবং বিউটি মন্ডলের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

উল্লেখ্য, উপজেলার কলাগাছি গ্রামের জগদীশ রায়’র ছেলে লম্পট মত্যুঞ্জয় রায় দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের দরিদ্র পরিবারের মেধাবী ছাত্রী বিউটিকে উত্ত্যাক্ত করা সহ কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। তাতে মেয়েটি রাজি না হওয়ায় ইন্টারনেট থেকে অন্য মেয়ের নগ্ন ছবি সংগ্রহ করে সেই ছবিটি এডিট করে তাতে বিউটি মন্ডলের মুখের ছবি জুড়ে দেয় মৃত্যুঞ্জয়। আর গত ১ সপ্তাহ আগে এডিট করা ছবিটি নীল নদী বিউটি নামের ফেসবুক আইডির মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয় লম্পট মৃত্যুঞ্জয়। এবিষয়ে গত রোববার থানায় অভিযোগ দায়ের করে বিউটির পিতা নিতাই মন্ডল। কিন্তু পুলিশ দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন না করায় লজ্জায়, ক্ষোভে, অভিমানে বুধবার দুপুরে নিজ ঘরের মধ্যে গলাই ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে বিউটি মন্ডল। বিষয়টি জানার পরপরই লম্পট মৃত্যুঞ্জয় সহ তার পরিবারের লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়। আত্মহত্যার ঘটনায় বুধবার সন্ধ্যায় তালা থানায় লম্পট মৃত্যুঞ্জয়’র বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনা আইনে মামলা করে হতভাগ্য বিউটি মন্ডলের কাকা দিপঙ্কর মন্ডল।

তালা থানার ওসি মো. মেহেদী রাসেল জানান, ঘটনার বিষয়ে অভিযোগ পাওয়ার পরপরই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল। এরইমধ্যে মেয়েটির আত্মহত্যার ঘটনাটি দুঃখজনক। তিনি বলেন, বিউটি মন্ডলের আত্মহত্যার ঘটনায় থানায় আত্মহত্যা প্ররোচনার দায়ের মৃত্যুঞ্জয় এর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। তাকে গ্রেফতার করতে জোর অভিযান চালানো হচ্ছে।
তিনি বলেন, বুধবার রাতে বিউটির মরদেহ উদ্ধার করা হয় এবং বৃহস্পতিবার সকালে সাতক্ষীরা মর্গ থেকে ময়না তদন্ত সম্পন্ন করা হয় এবং একই দিন দুপুরে অভিমানী বিউটির মরদেহ স্থানীয় শ্মশানে দাহ করা হয়।

#