তালায় আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে উত্তরণ ও জনসাধারণের রাস্তা সংস্কারে দূর্বৃর্ত্ত চক্রের বাঁধা


330 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালায় আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে উত্তরণ ও জনসাধারণের রাস্তা সংস্কারে দূর্বৃর্ত্ত চক্রের বাঁধা
ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৬ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
তালায় আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে উত্তরণ ও জনসাধারণের রাস্তা সংস্কারে বাঁধা প্রদান করেছে একটি দূর্বৃর্ত্ত চক্র। এ সময় তারা সংস্থার কর্মীদের প্রকাশ্য হত্যার হুমকি দেয়। এ ঘটনায়  উত্তরণ পরিচালক থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন। এদিকে তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও তালা থানার পুলিশ এগিয়ে আসলে তাদের সামনেও অব্যাহত হুমকি দেয় মহলটি। এ ঘটনায় তালাবাসীর মধ্যে দারুণ ক্ষোভের পাশাপাশি এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহবুবুর রহমান জানান, উত্তরণ আদালতের রায় পেয়ে সেখানে রাস্তা নির্মাণের কাজ শুরু করেছিল। যদি কোন পক্ষের আপত্তি থাকে তবে সেটি আদালতের মাধ্যমেই নিষ্পত্তি করতে হবে।
অভিযোগে প্রকাশ, গত ২৩/১২/২০১৪ তারিখে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অন্যতম বে-সরকারী সংস্থা উত্তরণ ও প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের যাতায়াতের জন্য রাস্তা নির্মাণের স্বার্থে কপোতাক্ষ পাড়ের তালার ৮৮নং মোবারকপুর মৌজার ৬৬ শতক  বিলান জমি খরিদ করেন। ঐ এলাকার মৃত কাদের বকস্ এর পুত্র শেখ মোঃ সিরাজ উদ্দীন ও তার ভাই শেখ মোঃ শরফুদ্দীন ঐ সম্পত্তি উত্তরণ পরিচালকের অনুকুলে সাফ-কোবলামূলে বিক্রি করেন। যার চলমান জরিপে দাগ নং ৩৪০/৩৬৫,খতিয়ান বি,এস ১২৮। কিন্তু স্থানীয় একটি চক্র উক্ত সম্পত্তি শশ্মানের দাবী করে সেখান দিয়ে প্রবাহমান যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করতে বিভিন্ন সময় নানা প্রতিবন্ধকতা ও হুমকি ধামকি দিলে উত্তরণের পক্ষে সংস্থার প্রশাসনিক কর্মকর্তা শম্ভূ চরণ চৌধুরী বাদী হয়ে সাতক্ষীরার আদালতে দেওয়ানী ৭৩/১৫ মামলা করেন।  মামলায় বিজ্ঞ আদালত গত ০৯/০২/১৬ তারিখে বাদীর পক্ষে সেখানে রাস্তা নির্মাণ পূর্বক বিবাদী পক্ষকে কোন প্রকার বাঁধা প্রদান না করতে নির্দেশ দেন। যার প্রেক্ষিতে উত্তরণের পক্ষে গত ১৪ ফেব্রুয়ারী সেখানে ৪০ জন শ্রমিক নিয়োগ করে রাস্তা সংস্কারের কাজ শুরু করলে মোবারকপুর এলাকার হৃদয় সাধুর নেতৃত্বে ৫০/৬০ জন লাঠি-সোটাসহ উক্ত সংস্কার কাজে বাঁধা প্রদান করে। এ সময় তারা আরো হুমকি দেয় যে, উত্তরণের লোক, স্থানীয় এলাকাবাসী কিংবা শ্রমিক যারাই কাজ করুক ঐ রাস্তার কাজ বন্ধ না করলে খুন করে মাটিতে পুঁতে ফেলা হবে। এ সময় ভুক্তভোগিরা তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানা পুলিশের দারস্থ হলে তাদের সামনে আরো চড়াও হয় উক্ত চক্রটি।  এ ঘটনায় উত্তরণ পরিচালক শহিদুল ইসলাম তালা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।
তালা থানার ওসি মোঃ ছগির মিঞা ডায়েরির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আদালতের রায় নিয়ে উত্তরণ রাস্তা নির্মাণের কাজ করছিল। বর্তমানে সেখানে রাস্তা নির্মাণের কাজ বন্ধ থাকলেও আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এনিয়ে কোন মহল কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
এদিকে ঘটনার পর থেকে উত্তরণ পরিচালকসহ সংস্থাটির কর্মীরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। যে কোন সময় দূষ্কৃতিকারীদের দ্বারা সেখানে কোন রক্তক্ষয়ী অনাকাংখিত ঘটনা ঘটে যাওয়ার আশংকায় তারা রীতিমত আতংকগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন। এ ব্যাপারে তারা তালা থানার ওসি, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।