তালায় আদালত অবমাননা করে জমি দখলের অভিযোগ


80 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালায় আদালত অবমাননা করে জমি দখলের অভিযোগ
জানুয়ারি ১০, ২০২১ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম. জুলফিকার রায়হান ::

বিজ্ঞ আদালতে মামলা চলমান থাকা অবস্থায় এবং জমি জোর দখল রোধে নির্দেশনা থাকার পরও আদালতকে অবমাননা করে তালার খানপুর গ্রামে বিরোধপূর্ন জমি জোর দখল করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। জমি দখলের জন্য দূর্বৃত্তদের দফায় দফায় হামলা ও হুমকির মূখে দরিদ্র নারান দাশের পরিবার যে আশংকা করেছিল তায় ঘটেছে। এঘটনায় ভুক্তভোগী নারান দাশের পরিবার অসহায় হয়ে পড়েছে।
তালা সদর ইউনিয়নের খানপুর গ্রামের মৃত. বাবুরাম দাশের ছেলে নারায়ন দাশ ও অর্জুন দাশ জানান, খানপুর বাজারের পাশে এস.এ ১০৬ নং খতিয়ানের ৯৪ নং দাগের ২৬ শতক জমি তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি। শরীকদের মধ্যে উক্ত জমি ভাগ হয়ে গেলে ওয়ারেশ হিসেবে তারা সর্বশেষ সাড়ে ৬ শতক জমি প্রাপ্ত হয়ে ভোগদখলীকার হন এবং সরকার বাহাদুরকে খাজনা প্রদান করে আসছেন। এমতাবস্থায় একই এলাকার মৃত. শংকর দাশের ছেলে হৃদয় দাশ, মৃত. সুধির দাশের ছেলে বিমল দাশ এবং বিমল দাশের ছেলে বাসুদেব দাশ ও সুকদেব দাশ পরস্পর যোগসাজসে ওই সাড়ে ৬শতক জমি দখল করার চেষ্টা চালাতে থাকে।
ভুক্তভোগী অর্জুন দাশ বলেন, প্রভাবশালী প্রতিপক্ষরা তাদের জমীর সীমানা অতিক্রম করে বিভিন্ন সময়ে আমাদের দখলীয় জমি অবৈধ ভাবে দখল করার চেষ্টা চালাতে থাকে। এনিয়ে তালা থানায় একটি অভিযোগ করা হয়। কিন্তু তালা থানা পুলিশকে অমান্য করায় সাতক্ষীরায় বিজ্ঞ আদালতে একটি মামলা (৩৬০/২০) দায়ের করা হয়। উক্ত মামলা বর্তমানে চলমান রয়েছে এবং শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য তালা থানা পুলিশ নির্দেশনা প্রদান করেন। কিন্তু এরপরও হৃদয় দাশ ও বাসুদেব দাশ গং বিভিন্ন সময় ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের সাথে নিয়ে ওই জমি দখলের পায়তারা চালাতে থাকে। এ বিষয়ে ইতোপূর্বে বিভিন্ন গণমাধ্যমে বস্তনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশিত হয়। এছাড়া তালা থানা পুলিশ বিজ্ঞ আদালত থেকে আদেশ প্রাপ্ত হয়ে তর্কিত জমিতে শান্তিপূর্ন পরিবেশ বজায় রাখার নির্দেশ প্রদান করেন এবং জমির মালিকানা নিরুপন করে বিজ্ঞ আদালতে রিপোর্ট জমা দেন।
কিন্তু পুলিশের নির্দেশনা অমান্য করে প্রভাবশালী প্রতিপক্ষ বাসুদেব দাশ গং রাতের আধাঁরে জমিতে জোরপূর্বক ঘর নির্মান করে সেই জমি দখল করে নিয়েছে। এঘটনায় নিরিহ জমি মালিক অর্জুন দাশ গং বর্তমানে অসহায় হয়ে তাদের জমি উদ্ধারের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

#