তালায় টিআরএম প্রকল্পের বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেছে অর্ধশতাধিক মৎস্য ঘের-ঘরবাড়ি


354 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালায় টিআরএম প্রকল্পের বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেছে অর্ধশতাধিক মৎস্য ঘের-ঘরবাড়ি
আগস্ট ১৬, ২০১৮ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

 

বি এম জুলফিকার রায়হান, তালা :
সাতক্ষীরার তালা উপজেলার দোহার গ্রামে কপোতাক্ষ নদের টিআরএম প্রকল্পের বাঁধ ভেঙ্গে অর্ধশতাধিক মৎস্য ঘের, শতাধিক ঘরবাড়ি ও রাস্তা তলিয়ে গেছে। উপজেলার শালিখা টিআরএম প্রকল্পের পশ্চিম পার্শে¦ দোহার খাল সংলগ্ন এলাকায় বুধবার ভোর রাতে বাধটি ভেঙে যায়।
তালার মাগুরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গণেশ দেবনাথ জানান, গত বুধবার ভোর রাতে টিআরএম’র দোহার খাল সংলগ্নে বাঁধ ভেঙ্গে যায়। এতে কপোতাক্ষ নদের পানি মাগুরাডাঙ্গা বিল ও মাদরা গুচ্ছগ্রামে প্রবেশ করে। পানিতে বিল তলিয়ে গেছে ।

জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এম. মফিদুল হক লিটু জানান, তাঁর ইউনিয়নের দোহার গ্রামে টিআরএম এর বাঁধ ভেঙ্গে পানি লোকালয়ের দিকে চলে আসে। তবে টিআরএম এর বাঁধের পানি মাধবখালী খালে পড়ায় খাল দিয়ে ভাটিতে পানি নিষ্কাশন হয়ে যাচ্ছে। অনতিবিলম্বে বাঁধ সংস্কার না হলে কপোতাক্ষ নদের জোয়ারের পানি খাল উপচে দোহার গ্রামের মধ্যে প্রবেশ করলে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হবে।

দোহার গ্রামের অমল বাছাড় জানান, কপোতাক্ষ নদের পানিতে মাদরা গুচ্ছগ্রামের রাস্তা, মাধবখালী খাল ও উত্তর বিলের অর্ধশতাধিক মৎস্য ঘের প্লাবিত হয়েছে। এছাড়া মাদরা ও মাদরা গুচ্ছগ্রামের শতাধিক বাড়ি ও রাস্তা পানিতে তলিয়ে গেছে। ফলে ওই এলাকায় চরম জনভোগান্তির সৃষ্টি হয়েছে। অতি দ্রুত বাঁধ সংস্কার করা না হলে জালালপুর ইউনিয়নের দোহার বিল, মাগুরা ইউনিয়নের মাদরা বিল ও খেশরা ইউনিয়নের কলাগাছি, রাজাপুর, বিশ্বাসের চক, হরিহরনগর ও শাহপুর বিলের শত শত মৎস্য ঘের এবং বসত বাড়ি প্লাবিত হয়ে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হবে।

এদিকে বৃহস্পতিবার ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করেছেন স্থানীয় সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ। এসময় তিনি দ্রুত বাঁধ সংস্কারের জন্য সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডকে নির্দেশ দেয়ার পর সেখানে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বাধ সংস্কারের কাজ চলছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মেরামত কাজ শেষ হয়নি।

তালার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী রাসেল জানান, পাখিমারা বিলে টিআরএম প্রকল্পের কাজে অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগে গত ১৪ আগস্ট দুদক খুলনার উপ-পরিচালক আবুল হোসেন বাদী হয়ে যশোরের সাবেক নির্বাহী প্রকৌশলী মশিউর রহমান, ঠিকাদার আলিম আল রাজী, কেশবপুরের সাবেক উপ সহকারী প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম, শফিকুল ইসলামসহ ১২ জনকে আসামী করে আলাদা ৩ টি মামলা দায়ের করেছেন।

উল্লেখ্য, ২৬২ কোটি টাকা ব্যায়ে কপোতাক্ষ নদ খনন প্রকল্পের গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে তালার পাখিমারা বিলে টিআরএম বাস্তবায়ন। আর এই টিআরএম প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য পাখিমারা বিলের চারিপাশে পানি নিয়ন্ত্রণ বাঁধ নির্মাণে ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়ম করা হয়। যে কারণে প্রথম থেকেই বাঁধ ভেঙ্গে যাবার আশংকা ছিল। প্রকল্পের ডিজাইন অনুযায়ী বাঁধ তৈরি না করায় ইতিপূর্বে কয়েকবার বিভিন্ন স্থানে বাঁধে ফাটল ও ভাঙ্গন দেখা দেয়।
###