তালায় দূর্বৃত্তদের হামলায় আতংকিত একটি সংখ্যালঘু পরিবার


456 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালায় দূর্বৃত্তদের হামলায় আতংকিত একটি সংখ্যালঘু পরিবার
ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৯ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম. জুলফিকার রায়হান ::

প্রভাবশালী দূর্বৃত্তদের দফায় দফায় হামলা ও হুমকির মূখ্যে আতংকিত হয়ে পড়েছে তালা উপজেলার বলরামপুর গ্রামের অসহায় গৌরপদ সাহা’র পরিবার। শতবছরের মালিকানাধিন সম্পত্তি রক্ষা সহ দূর্বৃত্তদের হামলা থেকে রক্ষা পাবার জন্য পরিবারটি উর্দ্ধতন পুলিশ প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
গৌরপদ সাহার ছেলে বিশ^নাথ সাহা জানান, একটি কূচক্রী মহলের উস্কানিতে বাগমারা গ্রামের রাজআলী শেখ’র ছেলে আরিজুল শেখ বিভিন্ন সময় ভাড়াটিয়া দূর্বৃত্তদের সাথে নিয়ে তাদের (বিশ^নাথ) উপর হামলা সহ নানান হুমকি দিয়ে আসছিল। এতে আতংকিত হয়ে পড়া বিশ^নাথের পরিবার তালা থানায় আরিজুল এর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। তালা থানা পুলিশ ঘটনাটি সুরাহা করার জন্য আরিজুলকে বারবার তলব করলেও থানা পুলিশকে পাত্তা দেয়নি আরিজুল ইসলাম।
বিশ^নাথ অভিযোগ করে বলেন, তালা থানা পুলিশের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে আরিজুল শেখ সহ তার ভাড়াটিয়ারা প্রায় ১৫দিন আগে হামলা চালিয়ে তাদের জমি জোর দখল সহ বাড়ি থেকে লুটপাটের চেষ্টা করে। এসময় তালা থানা পুলিশ তৎক্ষনাত ঘটনাস্থলে পৌছলে দূর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। তবে পরবর্তীতে একের পর এক হুমকি দিতে থাকে সংখ্যালঘু পরিবারটিকে। হামলা ও হুমকির ধারাবাহিকতায় গত বৃহস্পতিবার দুপুরে আরিজুল শেখ এর নেতৃত্বে শাহাদাৎ শেখ, শাহিনুর শেখ ও রফিকুল ইসলাম গংরা ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোঠা নিয়ে হামলা চালায় বিশ^নাথের পরিবারের উপর। এসময় ধারালো অস্ত্র’র মুখে বিশ^নাথের পরিবারকে জিম্মি করে বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে। একই সাথে বলরামপুর পদ্মবিলের পৈত্রিকসূত্রে প্রাপ্ত হয়ে প্রায় শত বছর ভোগদখলের ১৭ শতক কৃষি জমির ফসল নষ্ট করে দিয়ে জমি দখল চেষ্টা করে দূর্বৃত্তরা। এসময় গ্রামের লোকজন এগিয়ে আসলে দূর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। এঘটনায় বিশ^নাথ সাহা ওইদিন তালা থানায় হামলাকারিদের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
এদিকে, হামলা চালানোর ঘটনার পর থেকে দূর্বৃত্ত আরিজুল ও শাহাদাৎ শেখ গং বিশ^নাথের পরিবারকে দফায় দফায় নানান হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। এতে আতংকিত হয়ে পড়া গৌরপদ সাহার অসহায় পরিবারটি পুলিশ প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

#