তালায় বিষপানে মা, আর মায়ের দুধ খেয়ে শিশু পুত্রের করুণ মৃত্যু


799 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালায় বিষপানে মা, আর মায়ের দুধ খেয়ে শিশু পুত্রের করুণ মৃত্যু
অক্টোবর ১৪, ২০১৬ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম. জুলফিকার রায়হান, তালা :

উপজেলার বালিয়া গ্রামে ময়না বেগম (২৬) নামের এক গৃহবধুর বিষ ক্রিয়ায় মৃত্যু হয়েছে। এর কয়েক ঘন্টা পর এঘটনায় মারা গেছে তার আড়াই বছরের বছরের শিশু পুত্র  হাসানুর রহমান। গত বৃহস্পতিবার রাতে মা ও শিশু পুত্র’র এই মৃত্যু ঘঁনা ঘটে। ময়না বেগম এবং তার শিশু পুত্র’র বিষ ক্রিয়ায় অপমৃত্যুর ঘটনা নিয়ে রহস্য’র সৃষ্টি হয়েছে।

তালা থানার এসআই অহিদুজ্জামান জানান, মুড়াগাছা গ্রামের শহিদুল ইসলামের স্ত্রী ময়না বেগম দীর্ঘদিন ধরে বালিয়া গ্রামে তার পিতা মফিজুল গাজীর বাড়িতে থাকতেন। বৃহস্পতিবার বিকালে পিতার বাড়িতে ময়না বেগম বিষ ক্রিয়ায় গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। এরকিছু সময় পর তার শিশু পুত্র হাসানও অসুস্থ্য হতে শুরু করে। এসময় বাড়ির লোকজন চিকিৎসার জন্য তালা হাসপাতালে আনার সময় পথিমধ্যে জেঠুয়া এলাকায় পৌছলে ময়না বেগম মারা যায়। এঘটনার পরপরই ময়নার শিশু পুত্র হাসান গুরুতর অসুস্থ্য হতে থাকে। শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে তালা হাসপাতালে আনা হয়। এখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেবার সময় এদিন গভীর রাতে হাসানও পথিমধ্যে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে। এঘটনায় তালা থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা (৩৭/১৬) দায়ের হয়েছে। এছাড়া শুক্রবার সকালে লাশ দুটি উদ্ধার করে পুলিশ সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।

ময়না বেগমের মামা নজরুল গাজী জানান, ময়না বেগম মানষিক ভাবে কিছুটা অসুস্থ্য ছিল। ইতোপূর্বে তার তালার আগোলঝাড়া গ্রামে বিয়ে হয়। সেখানে একবার বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে সে ব্যর্থ হয়। এঘটনার পর ময়নাকে তার পিতা নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে এবং মুড়াগাছা গ্রামের শহিদুল ইসলামের সাথে বিয়ে দিয়ে মেয়ে ও জামায়কে নিজ বাড়িতে রাখে। পরিবারের সদস্যরা জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে ময়না বেগম সকলের অগোচরে বিষপান করে অসুস্থ্য অবস্থায় বাড়িতে আসে। এসময় তার শিশু পুত্র হাসান মায়ের বুকের দুধ পান করলে সেও অসুস্থ হয়। এঘটনায় মা ও পুত্র উভয়ে মারা গেছে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে তালা হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. আবু সাইদ রিপন বলেন, কীট নাশক পান করার পর সন্তানকে দুধ পান করানোর মত অবস্থা কোনও মায়ের থাকেনা। তাছাড়া বিষ পানকৃত মায়ের বুকের দুধ বিষাক্ত হওয়া এদিকে সময়ের ব্যপার অপরদিকে জীবিত মায়ের দুধ মারত্মক বিষাক্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। যেকারনে মা ময়না বেগম বিষপান করার আগেই তার শিশু পুত্রকে স্বল্প মাত্রায় বিষ পান করাতে পারে বলে- ডা. রিপন ধারনা করেছেন। তবে, ময়না বেগম কি কারনে বা কার উপর অভিমান করে বিষ পান করেছে তা দায়িত্বশীল কোনও সূত্র জানাতে পারেনি। এমনকি শিশু পুত্র হাসানের ঠিক কি ভাবে মৃত্যু হলো- তাও কেহ নিশ্চিত করে বলতে পারেনি। আবার মা ও মিশু পুত্রর মৃত্যুর বিষয়ে ময়নার স্বামী বা তার পিতার পরিবার থেকেও কোনও অভিযোগ করা হয়নি। তারপরও মা ও শিশু পুত্র’র এমন করুন মৃত্যুর ঘটনা কেন হলো বা কিভাবে হলো তানিয়ে রহস্য সৃষ্টি হচ্ছে।