তালায় রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং প্রকল্প দ্রুত গতীতে সম্পন্ন হচ্ছে


42 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালায় রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং প্রকল্প দ্রুত গতীতে সম্পন্ন হচ্ছে
আগস্ট ৬, ২০২২ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম জুলফিকার রায়হান ::

আশ্রয়ন প্রকল্পের অধিন তালা উপজেলার গৃহহীন ও ভূমিহীনদের জন্য বসতঘর নির্মানের পর এবার তাদের সু-পেয় পানি সরবারহ নিশ্চিত করতে সরকার রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এই প্রকল্পের অধিনে উপকারভোগী পরিবারগুলো ৩ হাজার লিটার ধারন ক্ষমতা সম্পন্ন একটি পানির ট্যাংক সহ ট্যাংকে বৃষ্টির পানি ধরে রাখাতে সকল উপকরনের সুযোগ পাবে। জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে তালা উপজেলায় রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ দ্রুত গতীতে সম্পন্ন হচ্ছে।
তালা উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী মো. মফিজুর রহমান জানান, তালা উপজেলার গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবারগুলোকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আশ্রয়ন প্রকল্পের অধীনে জমি সহ বসতঘর প্রদান করেছেন। সেখানে বাসবাসকারী পরিবারগুরো যাতে সু-পেয় পানি পান করতে পারে এজন্য রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং প্রকল্পের অধিনে পরিবার প্রতি ১টি করে ৩হাজার লিটার ধারন ক্ষমতার পানির ট্যাংক স্থাপন করে দেয়া হচ্ছে। উপজেলার অন্য এলাকায় প্রকল্প বাস্তবায়নের ধারাবাহিকতায় বর্তমানে খলিলনগর ইউনিয়নের নলতা গ্রামে আশ্রয়ন প্রকল্পের উপকারভোগী ৪২টি পরিবারের জন্য রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রায় শেষ পর্যায়ে। কিন্তু এরইমধ্যে একটি স্বার্থান্বেসী মহল তাদের স্বার্থ উদ্ধারে ব্যর্থ হয়ে অতিগুরুত্বপূর্ন ও স্পর্শকাতর এই প্রকল্প নিয়ে নানান অপপপ্রচার ও মিথ্যা তথ্য প্রচার করে সরকারের ভাবমূর্তী ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টা করছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।
উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী মো. মফিজুর রহমান বলেন, টেন্ডারের মাধ্যমে সাতক্ষীরার সোনা সাহেব ঠিকাদার নিযুক্ত হয়ে তালার নলতা গ্রামে ৪২টি রেইন ওয়াটার হার্ভেস্টিং প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এই প্রকল্পের নক্সা অনুযায়ী পানি ট্যাংক স্থাপনের জন্য একটি প্লাটফর্ম তৈরি করতে হবে। প্লাটফর্মের ২ লেয়ারের ইট ১৫ ইঞ্চি, ৪ লেয়ারের ইট ১০ইঞ্চি, ব্যাস ৫ফুট ৩ইঞ্চি এবং ১:৪ হিসেবে সিমেন্ট ও বালি দিয়ে কাজ করে প্লটফর্মটির প্লাস্টার সহ ড্যাডো করতে হবে। বালি ভরাট করে জমি উঁচু করায় এখানে প্লাটফর্মের নিচে অতিরিক্ত কোনও বালি বা বেজ ঢালায় প্রয়োজন হয়নি। অথচ একটি স্বার্থান্বেসী মহল তাদের স্বার্থ উদ্ধার না হওয়ায় এই প্রকল্পের বিরুদ্ধে নানান ভিত্তিহীন ও কাল্পনিক তথ্য প্রচার চালিয়ে সরকার এবং প্রকল্পের ভাবমূর্তী ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টা করছে।
জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী জানান, এই প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে ইট, সিমেন্ট, বালি সহ সবকিছু যাচাই-বছাই করে নেয়া হচ্ছে। এছাড়া, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয় সরজমিন পরিদর্শন করে কাজের মান পরীক্ষা করছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই প্রকল্পে দূর্নীতি বা অনিয়মের কোনও সুযোগ কাউকে দেয়া হবেনা।
এবিষয়ে জানতে চাইলে তালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার বলেন, নলতা গ্রামে প্রকল্পের কাজ সিডিউল অনুযায়ী করা হয়েছে। এখানে অনিয়ম হচ্ছে বলে আমার জানা নেই।
তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস জানান, সরজমিন পরিদর্শন করে প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য ব্যবহৃত ইট, বালি ও সিমেন্ট পরীক্ষা করে নেয়া হয়েছে। এছাড়া সর্বসময় প্রকল্পের কাজের দিকে নজর রাখা হচ্ছে।

#