তালায় সেই টয়লেটের নোংরা পানি বের রোধে যেনতেন সংস্কার কাজ


114 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালায় সেই টয়লেটের নোংরা পানি বের রোধে যেনতেন সংস্কার কাজ
আগস্ট ৬, ২০২২ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম. জুলফিকার রায়হান ::

তালা উপশহরের সরকারি কলেজ এলাকার রতন দাশের বাড়ির টয়লেটের ট্যাংক থেকে দীর্ঘদিন ধরে বের হওয়া নোংরা পানিতে পার্শ্ববর্তী বিশ্বাস আকরাম হোসেন’র বসত বাড়ি সহ এলাকার যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটি নোংরা হচ্ছে। এতে, রাস্তা দিয়ে যাতায়াতকারীরা প্রতিনিয়ত ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। এলাকার মানুষ বিষয়টি সমাধান করতে রতন কুমার দাশকে বারবার বললেও তিনি তা কর্নপাত করেননি। যেকারনে, ভোগান্তির শিকার এলাকাবাসী দিন দিন ক্ষুব্ধ হয়ে উঠছিল।
ভোগান্তির শিকার এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে ইতোমধ্যে গনমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়। পত্রিকায় খবর প্রকাশের পর টনক নড়ে বাড়ি মালিক রতন দাশের। তিনি টয়লেটের নোংরা পানি রাস্তায় ও প্রতিবেশির ঘরে প্রবেশ ঠেকাতে কাজ শুরু করেন। কিন্তু এই কাজ লোক দেখানো এবং যেনতেন ভাবে করা হয়েছে বলে প্রতিবেশিরা আবারও অভিযোগ তুলেছেন।
ভোগান্তির শিকার প্রতিবেশি ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বিশ্বাস আকরাম হোসেন বলেন, রতন কুমার দাশ’র বৃহৎ আবাসিক ভবনে অনেক ভাড়াটিয়া রয়েছে। তাদের টয়লেটে ব্যবহার করা পানি নিচের ভাঙ্গা সেপটি ট্যাংক থেকে বের হয়ে তাঁর বাড়ির সিঁড়িরুম সহ বারান্দার ফ্লোর ভিজে যাচ্ছে। ফলে, নোংরা পানির গন্ধে ঘরে বসবাস করা কঠিন হয়ে পড়েছে। এছাড়া ওই পানি এলাকায় যাতায়াতের একমাত্র রাস্তায় আসছে। রাস্তা দিয়ে যাতায়াতকারীদের টয়লেটের পানিতে কমবেশি ভিজতে হয় এবং নোংরা দূর্গন্ধে মানুষের দম বন্ধের উপক্রম হয়। এবিষয়ে রতন দাশকে বারবার বললেও তিনি স্থায়ী কোনও সমাধান করছে না। যে কারনে এলাকার মানুষ রতন দাশের উপর ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে।
ভুক্তভোগী বিশ্বাস আকরাম হোসেন বলেন, রতন দাশ মানুষের ক্ষোভ থেকে রক্ষা পেতে টয়লেটের ট্যাংকের ভিতরের ফেটে যাওয়া অংশ সংস্কার না করে বাইরের অংশ সংস্কার করছে। একারনে, কিছুদিন যেতে না যেতে আবারও টয়লেটের নোংরা পানি রাস্তা সহ বসত ঘরে আসবে। এবিষয়ে প্রতিকার পেতে তিনি সহ এলাকার বাসিন্দারা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

#