তালা সংবাদ ॥ দূর্নীতি প্রতিরোধে গণ শুনানী অনুষ্ঠিত


481 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালা সংবাদ ॥ দূর্নীতি প্রতিরোধে গণ শুনানী অনুষ্ঠিত
মার্চ ২৮, ২০১৬ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি.এম. জুলফিকার রায়হান, তালা প্রতিনিধি:
“দেশ প্রেমের শপথ নিন, দুর্নীতিকে বিদায় দিন” প্রতিপাদ্য সামনে রেখে তালায় দুর্নীতি প্রতিরোধ সপ্তাহ উপলক্ষ্যে গণ-শুনানী অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সাতক্ষীরা জেলা ও তালা উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির আয়োজনে সোমবার সকালে তালা সেটেলমেন্ট অফিস চত্বরে গণ শুনানীর আয়োজন করা হয়। গণ-শুনানীতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহবুবুর রহমান। সাতক্ষীরা জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ড. এম মতিউর রহমানের সভাপতিত্বে ও জেলা কমিটির সদস্য অধ্যাপক মোজাম্মেল হোসেনের পরিচালনায় গণ-শুনানীতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তালা সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার মো. মনিরুজ্জামান, সাতক্ষীরা জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব মো. জিয়াউদ্দীন, তালা উপজেলা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক অচিন্ত্য সাহা, সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. মফিজ উদ্দীন। গণ শুনানীতে মুক্ত আলোচনা করেন মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সোবহান, সমাজ সেবক আছাদুজ্জামান, মো. আলাউদ্দীন, সরদার মহাসীন হোসেন, মো. জাফর ইকবালসহ সেটেলমেন্ট অফিসে সেবা নিতে এসে দূর্নীহি এবং হয়রানীর শিকার ক্ষুব্ধ একাধিক সাধারন মানুষ। সেটেলমেন্ট অফিসে এসে হয়রানীর শিকার বহু সাধারন মানুষ গণ-শুনানীতে অংশনিয়ে তাদের হয়রানীর তথ্য তুলে ধরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।
##

তালার জালালপুর ইউনিয়নে ১টি কেন্দ্রে ভোট পুন:গননার দাবী
তালা প্রতিনিধি
তালা উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের ৯নং সাধারন ওয়ার্ডে প্রিজাইডিং অফিসার সাথে যোগসাজসে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর ভোট কারচুপির অভিযোগ উঠেছে। ওয়ার্ডের সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী মো. আবু তালেব মোল্য কারচুপির অভিযোগ উত্থাপন সহ পুনারয় ভোট গননার দাবীতে বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করেছেন।
আবু তালেব মোল্যা জানান, গত ২২ মার্চ অনুষ্ঠিত তালা উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের ৯ নং সাধারন ওয়ার্ডে টিউবওয়েল প্রতিক নিয়ে তিনি সদস্য পদে নির্বাচনে অংশগ্রহন করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, জালালপুর ইউনিয়নের ৯নং (আটুলিয়া-দোহার) ওয়ার্ডে সাধারন সদস্য পদের বিপরীতে ২৩১৩জন ভোটারের মধ্যে ১৯৩০ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। ভোট শেষে, ভোট গননাকালে টিউবওয়েল প্রতিকের বিজয় নিশ্চিত বুঝতে পেরে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী মনিরুজ্জামান গোলদার ভোট কেন্দ্রে ব্যপক দাঙ্গা-হাঙ্গামা সহ সহিংসতা সৃষ্টি করে। এসময় সে টিউবওয়েল প্রতিকের এজেন্ট মো. আবু সাইদকে জিম্মি করে কেন্দ্র দখল করার চেষ্টা করে। ঘটনার সংবাদ পেয়ে পুলিশ প্রশাসন ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে চলে যাবার পর মনিরুজ্জামান গোলদার নির্বাচনের প্রিজাইডিং অফিসার মো. ইকবাল উদ্দীন আহম্মেদ এর সাথে আতাত করে ভোটে কারচুপি করে। আবু তালেব মোল্যা আরও বলেন, মনিরুজ্জামান গোলদারের ফুটবল প্রতিককে বিজয়ী করার জন্য প্রিজাইডিং অফিসার ভোট গননাকালে পরস্পর যোগসাজসে টিউবওয়েল প্রতিকের ব্যলট পেপার কৌশলে ফুটবল প্রতিকের ব্যলটের মধ্যে রেখে দেয়। এবিষয়টি আবু তালেব মোল্য বুঝতে পেরে ফুটবল প্রতিক ও তার টিউবওয়েল প্রতিকের ব্যালট পেপার পুনরায় গননার দাবী জানায়। এসময় প্রিজাইডিং অফিসার ফুটবল প্রতিকের ৭০০ ব্যালট পেপারের ৭টি বান্ডিলের মধ্যে ১০০ ব্যলট পেপারের একটি বান্ডেল যাচাই করতে দেয়। যাচাইকালে ফুটবল প্রতিকের বান্ডিলের মধ্য হতে টিউবওয়েল প্রতিকের ৪টি ব্যালট পেপার উদ্ধার হয়। পরবর্তীতে মো. আবু তালেব মোল্যা ফুটবল প্রতিকের সকল ব্যলট পেপার পুনরায় গননার দাবী জানালে প্রিজাইডিং অফিসার তালা সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা মো. ইকবাল উদ্দীন আহম্মেদ সেই দাবী প্রত্যাখ্যান করে তালা উপজেলা পরিষদে এসে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষনা করেন। ফলাফল ঘোষনাকালে তিনি ফুটবল প্রতিককে ৯ ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী ঘোষনা করেন। একারনে, ভোটে কারচুপির অভিযোগ এনে আবু তালেব মোল্য পুনরায় ভোট গননা করে ভোটারদের মতামতের সঠিক মূল্যায়ন করার জন্য নির্বাচন কমিশনার থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরে আবেদন করেছেন।

###
তালার নাংলা মাদ্রাসায় স্বাধীনতা দিবস পালন
তালা প্রতিনিধি
উপজেলার নাংলা পীর শাহ্ জয়েন উদ্দীন (পিএসজে) ফাযিল মাদ্রাসায় যথাযোগ্য মর্যাদায় ও একাধিক কর্মসূচীর মধ্যদিয়ে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-১৬ পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে ২৬মার্চ সকালে মাদ্রাসায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কুচকাওয়াজ, র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মো. বায়জীদ হোসেন। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইসলামকাটী ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান অধ্যাপক সুভাস চন্দ্র সেন। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন, আওয়ামীলীগ নেতা নারায়ন চন্দ্র মজুমদার। এসময় অন্যান্যের মধ্যে মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ মো. শফিকুল ইসলাম, মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির নেতা মাহবুবুর রহমান মিঠু, প্রভাষক মো. ইউনুচ আলী, অ্যধাপক চিত্তরঞ্জন রায়, মাওলানা রফি উদ্দীন, সিদ্দিকুর রহমান, আহাদুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম ও মতিয়ার রহমান প্রমুখ।