তালা সংবাদ ॥ বাউখোলা গ্রামে ভূমিদস্যুদের হামলায় এক নারী আহত


425 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালা সংবাদ ॥ বাউখোলা গ্রামে ভূমিদস্যুদের হামলায় এক নারী আহত
জুন ৬, ২০১৮ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

তালা প্রতিনিধি ::
উপজেলার বাউখোলা গ্রামে ভূমিদস্যুরা খাস জমি জোর দখল করতে ভূমিহীনদের উপর হামলা অব্যাহত রেখেছে। তাদের তান্ডবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে ভূমিহীনরা অসহায় হয়ে পড়েছে। ভূমিদস্যুদের হামলায় এবার তাহেরুন্নেছা বেগম নামের এক মহিলা গুরুতর আহত হয়েছে।
জানাগেছে, ইসলামকাটী ইউনিয়নের বাউখোলা গ্রামে কপোতাক্ষ নদ সংলগ্নে খাস জমি বন্দোবস্ত নিয়ে চাষাবাদ করছিল স্থানীয় দরিদ্র ও হতদরিদ্র ভূমিহীন চাষীরা। কিন্তু কপোতাক্ষ নদ খনন প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য প্রশাসন উক্ত জমি বন্দোবস্ত প্রদান বন্ধ রাখেন। কিন্তু ভূমিহীন দরিদ্র চাষীরা স্থানীয় কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে সেই জমিতে চাষাবাদ অব্যাহত রেখেছে এবং নতুন করে বন্দোবস্ত পাবার জন্য কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করেছে। আবেদনের প্রেক্ষিতে ভূমিহীনদে মাজে জমি বন্দোবস্ত প্রদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এতে এলাকার ধর্ণাঢ্য ও প্রভাবশালী ভূমিদস্যুরা খাস জমি জোর নিজেরা দখল নেবার জন্য বিগত কয়েক বছর ধরে চেষ্টা চালাচ্ছে। এজন্য তারা একাধিক ভূমিহীন পরিবারের উপর হামলা, মামলা, হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। ভূমিদস্যুদের হামলায় একাধিক দরিদ্র ভূমিহীন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। আয়ুব আলী সহ একাধিক ভূমিহীন’র জমি ও ফসল জোর দখল করে নেয় ভূমিদস্যুরা। বাউখোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের খাস জমিতে বসবাসকারী হতদরিদ্র ভূমিহীন বাবলুর রহমানকে উচ্ছেদ করে জমি জোর দখল করার জন্য ভূমিদস্যুরা হামলা ও হুমকি অব্যাহত রেখেছে। এরইমধ্যে সাবেক চেয়ারম্যান লোকমান শেখ এর ভূমিদস্যু ছেলে নাশকতা মামলার আসামী আতাউর রহমান ও আমিনুর রহমান খাস জমি দখল করার জন্য বাবলু শেখ এর স্ত্রী তাহেরুনন্নেছা বেগমকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। তাহেরুন্নেছা বর্তমানে তালা হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছে। এঘটনায় থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। ঘটনার প্রতিকার পেতে ভূমিহীনরা সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

###

তালার মাগুরা যুব সংঘের গাছ কেটে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা
তালা প্রতিনিধি
তালার মাগুরা যুব সংঘ’র রোপন করা ফলজ ও বনজ সহ কলাগাছ কেটে সাবাড় করে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। মাগুরা যুব সংঘের নিয়ন্ত্রনাধিন খেলার মাঠের জমি দখল করার জন্য দূর্বৃত্তরা গাছগুলো কেটে দেয় বলে অভিযোগ উঠেছে।
মাগুরা যুব সংঘের সাধারন সম্পাদক শেখ আব্দুল আলীম নিটোল জানান, মাগুরা যুব সংঘের নিয়ন্ত্রনাধিন প্রায় দেড়শ’ বছরের পুরানো ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠটি এলাকার অতিগুরুত্বপূর্ন মাঠ। এলাকার তরুন ও যুব সমাজ এই মাঠে খেলা করে এবং এখানে বড় বড় বিভিন্ন টূর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া এলাকার বৃহৎ ওয়াজ মাহফিল অত্র খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। অথচ খেলার মাঠের উত্তর পাশের নদী সংলগ্নের প্রায় দেড় বিঘা জমি দখল করার জন্য দীর্ঘদিন ধরে অপচেষ্টা চালাচ্ছে মাগুরাডাঙ্গা গ্রামের মৃত. নওয়াব আলী খাঁ’র ছেলে সেলিম হোসেন খাঁ। সেলিম খাঁ’র বিরুদ্ধে এলাকার সংখ্যালঘুদের উপর হামলা, মাদক সেবন ও বিক্রি, দখলবাজী, দাঙ্গাবাজী ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকার অভিযোগ রয়েছে। এসব কারনে তার বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলাও রয়েছে। সূত্রে জানাগেছে, পুলিশ প্রশাসনের চলমান মাদক বিরোধী অভিযান শুরু হবার পর সেলিম খাঁ এলাকা ছেড়ে পালায়। আত্মগোপনে থাকাকালে সেলিম খাঁ তার ভাই আজিবর খাঁকে দিয়ে মাগুরা যুব সংঘের খেলার মাঠের দেড় বিঘা জমি দখল করানোর চেষ্টা চালায়। কিন্তু যুব সংঘের সদস্যদের প্রতিরোধের মূখে তা ব্যর্থ হয়। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে সেলিম খাঁ ভাড়াটিয়া দূর্বৃত্তদের সাথে উক্ত জমি জোর দখলের চেষ্টা করে। এ সংক্রান্তে বিভিন্ন সময়ে পত্রিকায় বস্তনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশিত হয়।
শেখ আব্দুল আলীম নিটোল অভিযোগ করে বলেন, বিগত কয়েকদিন আগে দূর্বৃত্ত সেলিম খাঁ এলাকার একটি কূ-চক্রী মহলের ছত্রছায়ায় এলাকায় ফিরে আসে এবং খেলার মাঠের জমি জোর দখলের জন্য প্রকাশ্য আস্ফালন করে। এরই একপর্যায়ে সোমবার গভীর রাতে সেলিম খাঁ সহ তার ভাড়াটিয়া দূর্বৃত্তরা মাগুরা যুব সংঘের রোপন করা কলাগাছ সহ বিভিন্ন ফলজ ও বনজ গাছ কেটে সাবাড় করে দেয়। বর্তমানে সেলিম খাঁ তার পোষ্য দূর্বৃত্তদের নিয়ে যেকোনও সময় খেলার মাঠের জমি জোর দখল করতে পারে বলে আশংকা করেছে মাগুরা যুব সংঘের সদস্যরা। এঘটনায় এলাকার ক্রীড়া সংগঠকরা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।