তালা সেটেলমেন্ট অফিসের দূর্নীতি ও অনিয়মের সংবাদ প্রকাশ করায় দূর্নীতিবাজ সেটেলমেন্ট অফিসারের নেতৃত্বে সাংবাদিকদের উপর হামলা


412 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তালা সেটেলমেন্ট অফিসের দূর্নীতি ও অনিয়মের সংবাদ প্রকাশ করায় দূর্নীতিবাজ সেটেলমেন্ট অফিসারের নেতৃত্বে সাংবাদিকদের উপর হামলা
জুলাই ৩, ২০১৫ খুলনা বিভাগ তালা
Print Friendly, PDF & Email

 

তালা সেটেলমেন্ট অফিসের দূর্নীতি ও অনিয়মের সংবাদ প্রকাশ করায়
দূর্নীতিবাজ সেটেলমেন্ট অফিসারের নেতৃত্বে সাংবাদিকদের উপর হামলা

বি.এম. জুলফিকার রায়হান, তালা (সাতক্ষীরা) : তালার বহুল আলোচিত দূর্নীতিবাজ, শত অপকর্মের নায়ক, তালা সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার গাজী মনিরুজ্জামান ও পেশকার অহিদুজ্জামানের বিরুদ্ধে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকদের উপর হামলা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালে সেটেলমেন্ট অফিসার পেশকারের অনিয়ম এবং দূর্নীতির বিষয়ে প্রত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের প্রেক্ষিতে তদন্তে আসা তদন্ত কর্মকর্তাদের সামনে এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় তালা প্রেস ক্লাব সভাপতি এস.এম. নজরুল ইসলাম এবং পাটকেলঘাটা প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাক আবুল কাশেম সাগর আহত হয়েছেন। এঘটনায় তালা কর্মরত সাংবাদিকদের মাঝে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।
সূত্রে প্রকাশ, তালা সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার গাজী মনিরুজ্জামান এবং রেকর্ড কিপার কাম পেশকার অহিদুজ্জামান তালা সেটেলমেন্ট অফিস দখল নিয়ে সীমাহীন দূনীতি আর অনিয়মের রামরাজত্ব কায়েম করেছে। তাদের দূর্নীতি আর অনিয়মে তালাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার গাজী মনিরুজ্জামান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, র‌্যাবের ডিজি এবং শেখ সেলিমের নিকট আত্বীয় পরিচয় দিয়ে সীমাহীন অনিয়ম আর দূর্নীতি তিনি সহ তার দোসর অহিদুজ্জামান করে যাচ্ছেন। এসংক্রান্তে বিভিন্ন পত্রিকায় তাদের বিরুদ্ধে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশিত হলে জোনলা সেটেলমেন্ট অফিসার ঘটনার তদন্তে ৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করে দেন। গঠিত তদন্ত কমিটির তদন্তকালে বৃহস্পতিবার বেলা ৩টার দিকে তালা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান সাংবাদিক এসএম নজরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি আব্দুল আলীম, প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক জলিল আহমেদ, সিনিয়র সাংবাদিক আবুল কাশেম  সাগর, বিএম জুলফিকার রায়হান সহ সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ তদন্ত টিমের অনুমতি নিয়ে তাদের কাছে নিউজ সংক্রান্ত বিষয়ে বক্তব্য নিতে যান। এসময় দূর্নীতিবাজ সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার গাজী মনিরুজ্জামান তার পোষ্য বাহিনীকে সংবাদ দিয়ে সেটেলমেন্ট অফিসে নিয়ে আসেন। এসময় ভাড়াটিয়া দূর্বৃত্ত শিমুল তদন্তকারী কর্মকর্তাদের সামনেই প্রেস ক্লাব সভাপতি সাংবাদিক এস. এম. নজরুল ইসলাম এবং আবুল কাশেম সাগরের উপর হামলা করে। এতে করে সাধারন জনতা সাংবাদিকদের পক্ষে অবস্থান নিয়ে ফুঁসে উঠলে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তাৎক্ষনিক ভাবে খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহাবুবুর রহমান ও তালা থানার ওসি মো. রেজাউল ইসলাম রেজা ঘটনাস্থলে ছুটে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। উল্লেখ্য, সেটেলমেন্ট অফিসার এবং পেশকারের দূর্নীতির বিষয়ে গঠিত তদন্ত কমিটি গত ৩দিন যাবৎ তদন্তকালে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে ভূয়া কেস সৃষ্টি এবং অফিসের মূল রেজিষ্টার বই টেম্পারিং এর মাধ্যমে শত শত তামাদী মৌকুফের তথ্য প্রমান পেয়েছেন। এই ঘটনায় এএসও মনিরুজ্জামান ও পেশকার অহিদুজ্জামানের সাথে যোগসাজসে শতাধিক জালিয়াত কেস সৃষ্টির নায়ক মোহরার মোহাম্মাদ আলীর যোগসূত্রতা খুজে পান। ফলে সংবাদ প্রকাশকারী সাংবাদিকদের শায়েস্তা করতে তারা পূর্ব থেকেই পরিকল্পনা আটতে থাকে। এক পর্যায়ে গতকাল বিকেলে সাংবাদিকরা তদন্ত কমিটির সাথে দেখা করতে গেলে তারা সাংবাদিকদের উপর হামলা চালায়। এঘটনায় গাজী মনিরুজ্জামানসহ ৫ জনকে আসামী করে তালা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। জানাযায়, মহা দূর্নীতিবাজ গাজী মনিরুজ্জামান ইতোপূর্বে আশাশুনি ও শ্যামনগর উপজেলা থেকে দূর্নীতির দায়ে জনগনের ধাওয়া খেয়ে পালিয়ে আসতে বাধ্য হন। এদিকে, দূর্নীতিবাজ মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে সাংবাদিকদের উপর হামলার দায়ে তার গ্রেফতারের দাবীতে তালা প্রেসসক্লাব ৩দিন ব্যাপী কর্মসূচী ঘোষনা করেছে। অপরদিকে তালার সিনিয়র সাংবাদিকদের উপর হামলার ঘটনায় ফুঁসে উঠেছে তালার কর্মরত সাংবাদিকরা। সাংবাদিকরা অবিলম্বে দূর্নীতিবাজ সেটেলমেন্ট অফিসার সহ তারে সহযোগী এবং পোষ্য দূর্বৃত্তদের গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছেন।