তিন জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩


2054 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তিন জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩
মে ২০, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
বরিশাল, ময়মনসিংহ ও ফেনীতে পুলিশের সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’র ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছে।

শনিবার গভীর রাত থেকে রোববার ভোরের মধ্যে এসব ‘বন্দুকযুদ্ধে’র ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশের বরাত দিয়ে সমকালের বরিশাল ব্যুরো জানায়, শনিবার রাত আড়াইটার দিকে বরিশাল সদর উপজেলার শায়েস্তাবাদ বটতলা এলাকায় গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একজন নিহত হয়।

পুলিশ বলছে, নিহত ব্যক্তি ডাকাতদলের সদস্য। তবে তার পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ।

বরিশাল মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের সহকারী কমিশনার নাছির মল্লিক জানান, শায়েস্তাবাদ এলাকায় শনিবার রাতে ডিবি পুলিশের একটি টহল দল বটতলা এলাকায় গেলে সেখানে অবস্থানরত একদল ডাকাত পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে ডাকাতদলের সদস্যরা পিছু হটলে সেখানে এক ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

এ ঘটনায় ডিবি পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়েছে উল্লেখ করে নাছির মল্লিক জানান, তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান, একটি দা ও একটি চাপাতি উদ্ধার করেছে।

পুলিশের বরাত দিয়ে ময়মনসিংহ ব্যুরো জানায়, শনিার রাত সোয়া ২টার দিকে ময়মনসিংহের মাসকান্দা এলাকার গনশার মোড়ে গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে (ডিবি) ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রিয়াজুল ইসলাম বিপ্লব (৪০) নামে একজন নিহত হয়।

পুলিশ বলছে, বিপ্লব ওই এলাকার একজন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী।

ময়মনসিংহ সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান জানান, কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী মাসকান্দা এলাকায় জড়ো হয়ে একটি চালান নিজেদের মধ্যে ভাগাভাগি করছে— এমন খবর পেয়ে ডিবির একটি দল সেখানে অভিযানে যায়।

তিনি জানান, পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি করলে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। গোলাগুলির এক পর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পিছু হটলে সেখানে বিপ্লবকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় আহত পুলিশের দুই সদস্যকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে জানিয়ে ওসি বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ২০০ গ্রাম হেরোইন, ২০০টি ইয়াবা, তিনটি গুলির খোসা ও দুটি চাকু উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে পুলিশের বরাত দিয়ে ছাগলনাইয়া (ফেনী) প্রতিনিধি জানান, রোববার ভোরের দিকে ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার পাঠান নগর ইউনিয়নের পশ্চিম পাঠান গড় গ্রামে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া (৩৩) নামে এ ব্যক্তি নিহত হয়েছে।

নিহত আলমগীর পাঠান গড় গ্রামের প্রয়াত আব্দুস ছালামের ছেলে। পুলিশ বলছে, আলমগীর ওই এলাকার একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী।

ছাগলনাইয়া থানার ওসি এম মোর্শেদ জানান, উপজেলার পশ্চিম পাঠান গড় এলাকায় মাদকের একটি বড় চালান যাওয়ার খবর পেয়ে রোববার ভোরে পুলিশের একটি দল সেখানে অভিযানে যায়।

তিনি জানান, পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি করলে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে গোলাগুলি থামার পর সেখানে আলমগীরকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। উদ্ধার করে ফেনী জেলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় আহত পুলিশের দুই সদস্যকে জেলা সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে জানিয়ে ওসি বলেন, ঘটনাস্থল থেকে একটি বন্দুক, তিন রাউন্ড গুলি, শতাধিক বোতল ফেনসিডিল ও এক হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত আলমগীরের বিরুদ্ধে ছাগলনাইয়া, ফুলগাজী, ফেনী সদর থানায় ১০টির মতো মামলা রয়েছে বলেও জানান ওসি।