তিন দিনে কমিয়ে ফেলুন চার কেজি ওজন


456 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তিন দিনে কমিয়ে ফেলুন চার কেজি ওজন
নভেম্বর ২৩, ২০১৫ ফটো গ্যালারি স্বাস্থ্য
Print Friendly, PDF & Email

ভযেস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক :
মাঝে মাঝে অনেকেই জানতে চান,“কীভাবে এক সপ্তাহে পাঁচ কেজি ওজন কমাব? আমার সামনে বড় অনুষ্ঠান, অথবা বিয়ে ইত্যাদি ইত্যাদি।” তাদের জন্য বলছি, প্রিয় পাঠক, কোন মেডিকেল প্রসিডিওর ছাড়া এক সপ্তাহে পাঁচ কেজি মেদ কমিয়ে ফেলা একেবারেই অসম্ভব।

ডায়েটের মাধ্যমে সর্বোচ্চ আপনার শরীরে জমে থাকা অতিরিক্ত পানি বা ওয়াটার ওয়েট ঝড়িয়ে ফেলা যায়। কিন্তু এই ওয়াটার ওয়েটকে মেদ বলে ভুল করবেন না।

স্ট্রিক্ট ডায়েটে চিনি আর লবণের হার কম থাকায় আমাদের শরীরে পানি জমতে পারে না। কিন্তু যে মুহূর্তে আপনি ডায়েট ছেড়ে আপনার নরমাল ফুড হ্যাবিটে ফেরত যাবেন আপনার ওজন আবার ফেরত চলে আসবে।

নিশ্চয়ই ভাবছেন এত জ্ঞ্যান দিচ্ছি কিন্তু আর্টিকেলের নামে তো তিন দিনের ডায়েটে প্রায় চার কেজি ওজন কমানোর কথা বলা হয়েছে! এত কথা বলার কারণ আপনাদের সাবধান করে দেয়া।

আজ এই আর্টিকেলে যে ডায়েট প্ল্যানের কথা বলব তার নাম মিলিটারি ডায়েট প্ল্যান। এটা খুবই স্ট্রিক্ট আর কঠিন একটা ডায়েট। যারা ওজন নিয়ে খুব সমস্যায় আছেন তারা একবার এটা ট্রাই করতে পারেন কিন্তু মনে রাখবেন, এই ডায়েটের কোন খাবারই আমাদের দেশীয় নয় এবং যারা নিজের ফুড হ্যাবিট কন্ট্রোল করতে পারেন না তাদের জন্য এটা মেনটেইন করা খুবই কঠিন হবে।

আর আপনি যদি ডায়েট ছেড়ে পুরোপুরি আনহেলদি লাইফস্টাইলে চলে যান তবে ঝরে যাওয়া সব ওজন খুব দ্রুত ফেরত আসবে। এইজন্য ভালো ফল পেতে অতিরিক্ত চিনি, লবণ, তেল, মসলা আর কোল্ড ড্রিংক একেবারেই ছেড়ে দেবার চেষ্টা করুন।
চলুন জেনে নিই ডায়েট প্ল্যান সম্পর্কে-

এই ডায়েট প্ল্যান ২০০৭ সাল থেকে চলে আসছে। এর অসামান্য পপুলারিটি দেখে এই ডায়েটের মতই আর অনেক কপিক্যাট দেখা গেলেও মিলিটারি ডায়েট আজ ওজন কমানোয় দুনিয়ার সব ডায়েটারদের কাছে সমাদৃত। এখানে থাকবে মোট তিন দিনের ফুড প্ল্যান (ব্রেকফাস্ট , লাঞ্চ আর ডিনার)। এই প্ল্যানের বাইরে এই তিন দিনে আর কিছু খাওয়া যাবে না।
অবশ্যই মনে রাখবেন-

ডায়েট শুরু করার আগে অবশ্যই আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলে নেবেন। স্পেশালি যাদের লো বা হাই প্রেশার আছে অথবা গ্যাস্ট্রিক বা অ্যাসিডিটির সমস্যা আছে।
তিন দিনের পর ব্রেক নিন। তিন দিনের বেশি একনাগাড়ে এই ডায়েটে থাকবেন না। চাইলে ৪ দিন ব্রেক নিয়ে আবার শুরু করুন।
ডায়েটে থাকা অবস্থায় ক্লান্ত লাগলে বা মাথা ঘুরলে সাথে সাথে ডায়েট ছেড়ে দিন।
ডায়েট চলাকালীন সময়ে কোন ধরনের সাপ্লিমেনট/ভিটামিন খাবেন না।
কোন রোগের চিকিৎসা চলতে থাকলে কোন ধরনের ডায়েটই ট্রাই করবেন না।

প্রথম দিনঃ

ব্রেকফাস্ট-

একটা ছোট কমলা/অর্ধেক গ্রেপফ্রুট

এক স্লাইস টোস্ট

দুই টেবিলচামচ কম লবণের পিনাট বাটার (সুপারশপে পাবেন)

চিনি ছাড়া এক মগ কফি/চা/গ্রিন টি

লাঞ্চ-

অল্প লবণে রান্না করা আধা কাপ/এক টুকরা মাছ (তৈলাক্ত মাছ যেমন পাঙ্গাশ, আইড় নয়)

এক স্লাইস টোস্ট

চিনি ছাড়া এক মগ কফি/চা/গ্রিন টি

ডিনার-

অল্প তেল আর লবণে গ্রিল করা মুরগির বুকের মাংস বা লেগপিস

আধা কাপ বরবটি/ এক চামচ বিন সিদ্ধ (হালকা লবণ আর গোলমরিচ দিয়ে সিদ্ধ করবেন, চাইলে চিকেন স্টক দিতে পারেন। বিন আর স্টক দুটোই সুপারশপে পাবেন। যদি বিন না পান তবে কম লবণে রান্না করা আধা কাপ ডাল খেতে পারেন)

একটা কলার অর্ধেক/ একটা ছোট সবরি কলা/এককাপ পেঁপে

একটা ছোট আপেল

এক টেবিল চামচ ভ্যানিলা আইসক্রিম (পুরো এক স্কুপ বা কাপ কিন্তু না)

দ্বিতীয় দিনঃ

ব্রেকফাস্ট-

একটা সিদ্ধ ডিম

এক স্লাইস টোস্ট

একটা কলার অর্ধেক/ একটা ছোট সবরি কলা/এককাপ পেঁপে

লাঞ্চ-

একটা সিদ্ধ ডিম

এক স্লাইস ঢাকাই চিজ (আধা সে.মি. পুরু)/ আধা কাপ টক দই

৫ টা ডায়াবেটিক ক্র্যাকারস

ডিনার-

গ্রিল করা মুরগির বুকের মাংস বা লেগপিস (২ পিস খেতে পারেন)

এক কাপ অল্প লবণ, গোলমরিচ আর চিকেন স্টকে সিদ্ধ করা ব্রোকলি (ব্রোকলির বদলে সমপরিমাণ ফুলকপি, বাঁধাকপি বা বিট খেতে পারেন)

আধা কাপ গাজর

একটা কলার অর্ধেক/ একটা ছোট সবরি কলা/এককাপ পেঁপে

এক টেবিল চামচ ভ্যানিলা আইসক্রিম (পুরো এক স্কুপ বা কাপ কিন্তু না)

তৃতীয় দিনঃ

ব্রেকফাস্ট-

৫ টা ডায়াবেটিক ক্র্যাকারস

এক স্লাইস ঢাকাই চিজ (আধা সে.মি. পুরু)/ আধা কাপ টক দই

একটা ছোট আপেল

চিনি ছাড়া এক মগ কফি/চা/গ্রিন টি

লাঞ্চ-

একটা সিদ্ধ ডিম

এক স্লাইস টোস্ট

ডিনার-

অল্প লবণে রান্না করা আধা কাপ/এক টুকরা মাছ (তৈলাক্ত মাছ যেমন পাঙ্গাশ, আইড় নয়)

একটা কলার অর্ধেক/ একটা ছোট সবরি কলা/এককাপ পেঁপে

এক কাপ ভ্যানিলা আইসক্রিম

যেভাবে কাজ করে ডায়েট প্ল্যান

মিলিটারি ডায়েট প্ল্যান দাবি করে যে এই ডায়েটে আপনার মেটাবোলিজম বাড়ে। প্রোটিন রিচ এই ডায়েট আপনাকে শক্তি যোগায় আর মেদ ঝরানোর প্রসেস ত্বরান্বিত করে।

আপনাকে একনাগাড়ে তিন দিন এই ডায়েটে থাকতে হবে এবং যদি কাঙ্খিত ফল না পান তবে তিন দিনের প্ল্যান শেষে ৪ দিন গ্যাপ দিয়ে আবার ডায়েটে ফিরে যান।

যদি এই ডায়েট সঠিকভাবে ফলো করতে পারেন অবশ্যই আপনি ওজন কমাতে সক্ষম হবেন। কিন্তু আবারো মনে করিয়ে দিচ্ছি, প্রেশার বা অ্যাসিডিটির সমস্যা থাকলে এই ডায়েটে যাবেন না। হিতে বিপরীত হতে পারে।