তিন বছরে চিকিৎসা নিতে আসা ৪৩ শতাংশ রোগীর ক্যান্সার শনাক্ত


147 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তিন বছরে চিকিৎসা নিতে আসা ৪৩ শতাংশ রোগীর ক্যান্সার শনাক্ত
ডিসেম্বর ৭, ২০২২ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

রাজধানীর জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের বহির্বিভাগে তিন বছরে (২০১৮, ২০১৯ ও ২০২০) প্রায় ৮৪ হাজার রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। তাদের মধ্যে প্রায় ৪৩ শতাংশ রোগীর প্রাথমিকভাবে ক্যান্সার শনাক্ত হয়েছে।

বুধবার হাসপাতালের অডিটরিয়ামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ইনস্টিটিউটের ক্যান্সার ইপিডেমিওলোজি বিভাগের অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান ডা. মো. হাবিবুল্লাহ তালুকদার রাসকিন (ক্যানসার রেজিস্ট্রি রিপোর্ট ২০১৮-২০২০) সংক্রান্ত রিপোর্ট দিতে গিয়ে এ তথ্য জানান।

২০১৮-২০২০ সালের প্রকাশিতব্য প্রতিবেদন অনুযায়ী, তিন বছরে জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইন্সটিটিউটে ও হাসপাতালের বহির্বিভাগে মোট ৮৩ হাজার ৭৯৫ জন রোগী সেবার জন্য এসেছেন, যাদের মধ্যে ৩৫ হাজার ৭৩৩ (৪২.৬%) জনের চূড়ান্ত কিংবা প্রাথমিকভাবে ক্যান্সার হিসেবে রোগ নির্ণয় হয়েছে। তাদেরকে রেজিস্ট্রিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

নিবন্ধিত রোগীদের মধ্যে ১৯ হাজার ৫৪৬ জন (৫৫%) পুরুষ ও ১৬ হাজার ১৮৭ জন (৪৫%) নারী। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে শীর্ষ দশ ক্যান্সারের মধ্যে আছে যথাক্রমে ফুসফুস (১৭.৪%), স্তন (১৩.৪%), জরায়ুমুখ (১০.৯%), খাদ্যনালী (৪.৯%), পাকস্থলী (৪.৩%), লিভার (৩.৯%), লসিকা গ্রন্থি (৩.৮%), মলাশয় (৩.১%), গাল (৩%) ও পিত্তথলির (১.৫%) ক্যান্সার। পুরুষদের মধ্যে শীর্ষ ক্যান্সার ফুসফুস (২৬.৬%) এবং নারীদের মধ্যে স্তন ক্যান্সার (২৯.৩%)।