তুজলপুর কৃষি সমিতির সরকারি অনুদানের পাওয়ার ট্রিলার বিক্রয়ের অভিযোগ


520 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তুজলপুর কৃষি সমিতির সরকারি অনুদানের পাওয়ার ট্রিলার বিক্রয়ের অভিযোগ
মে ১৫, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার:
সাতক্ষীরা সদর উপজেলার তুজলপুর কৃষক সমিতির সরকারি ভর্তুকির দেওয়া পাওয়ার ট্রিলারটি নিয়ম বহির্ভূতভাবে বিক্রয় করা হয়েছে। নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক কয়েকজন কৃষকের অভিযোগের ভিত্তিতে সরোজমিনে গেলে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়। সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বল্লী ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের বর্তমান  বাসিন্দা মোঃ কেদাম ৯২০০০ টাকা দিয়ে পাওয়ার ট্রিলারটি ক্রয় করে তুজলপুর সিআইজি বা কৃষক সমিতি থেকে।

শনিবার পাওয়ার ট্রিলারটির ক্রেতা সেজে কেদামের সাথে কথা বললে তিনি বলেন ৯২০০০ টাকা দিয়ে কিনেছি ৯২০০০ টাকায় বিক্রি করবো। সরকারি জিনিস খারাপ হবে না। কোথা থেকে কিনলেন জিঞ্জাসা করা হলে তিনি বলেন তুজলপুর কৃষক সমিতির কাছ থেকে। তার কাছে কাগজপত্র আছে কিনা  জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন কোন কাগজপত্র নেই। কৃষক সমিতির দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যাক্তিরা আমাকে বিক্রয়ের সময় লিখিত কোন কাগজপত্র দেয় নি। তারা বলেন কোন সমস্যা নেই। মাঠেঘাটে চলে কাগজপত্র লাগে না”। এছাড়াও তিনি বলেন কাগজপত্র ইয়ারব ভাইয়ের কাছে আছে। (সব কিছুর ভিডিও ক্লিপ আছে)।
মো কেদাম আরো বলেন“ আমি একজন পাওয়ার ট্রিলার ব্যবসায়ী। আমি পাওয়ার ট্রিলারটি তুজলপুরের ইয়ারবের কাছ থেকে কিনেছি। এরকম সরকারি পাওয়ার ট্রিলার শত শত বিক্রয় হচ্ছে”।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সাথে এ ব্যাপারে কথা বলা হলে তিনি বলেন “ সরকারি ভতর্’কির পাওয়ার ট্রিলারটি বিক্রয়ের কোন নিয়ম নেই। মাত্র ৭০০০০ টাকা দিয়ে গরীব কৃষকদের চাষের জন্য পাওয়ার ট্রিলারটি সরকার দিয়েছে। যেটা সরকার ব্যাতীত কেউ বিক্রয় করতে পারবে না”।

এ ব্যাপারে কয়েকজন কৃষকের সাথে কথা বলা হলে তারা জানায় ঝাউডাঙ্গা ব্লকের উপ-সহকারি কৃষি অফিসাররা তুজলপুর কৃষক সমিতির সভাপতির চাপে থাকে। তাছাড়া অনেক সরকারি অনুদান প্রকৃত কৃষকরা পায় না।