তৃতীয় বৃহত্তম পরমাণু শক্তিধর দেশ হতে যাচ্ছে পাকিস্তান


493 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
তৃতীয় বৃহত্তম পরমাণু শক্তিধর দেশ হতে যাচ্ছে পাকিস্তান
আগস্ট ২৮, ২০১৫ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক :
পাকিস্তান আগামী তিন বছরের মধ্যে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম পরমাণু অস্ত্রের ভাণ্ডারের অধিকারী দেশে পরিণত হবে। আগামী তিন বছরে দেশটির পরমাণু অস্ত্রের ভাণ্ডার বেড়ে অন্তত সাড়ে তিনশ’তে পৌঁছানোর কারণে বিশ্বে এ অবস্থানে পৌঁছাবে পাকিস্তান।

যুক্তরাষ্ট্রের দুই থিংক ট্যাংক কার্নেগি এনডাওমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল পিস এবং দ্যা স্টিমসন সেন্টারের এক প্রতিবেদনে এ দাবি করা হয়েছে। এতে বলা হয়, পাকিস্তান দ্রুত নিজ পরমাণু বোমার ভাণ্ডার বাড়িয়ে চলেছে।  ভারতের ভয়ে ভীত হওয়ার কারণে এভাবে পরমাণু অস্ত্রের সংখ্যা বাড়িয়ে চলেছে দেশটি।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, পরমাণু বোমা মজুদের দিক থেকে ভারতকে অনেক ছাড়িয়ে গেছে পাকিস্তান। প্রতিবেদনের হিসাব অনুযায়ী, পাকিস্তানের ভাণ্ডারে ১২০টি পরমাণু বোমার মজুদ রয়েছে। অন্যদিকে ভারতের অস্ত্র ভাণ্ডারে রয়েছে প্রায় ১০০টি পরমাণু বোমা।

পাকিস্তান প্রতিবছর গড়ে ২০টি করে পরমাণু বোমা তৈরি করছে বলে এ প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়েছে। এ ছাড়া ব্যাপক পরিমাণে উচ্চ সমৃদ্ধ ইউরেনিয়াম মজুদ থাকায় আগামী কয়েক বছরে পাকিস্তানের পক্ষে কম ক্ষমতা সম্পন্ন পরমাণু বোমা দ্রুত তৈরির ক্রমবর্ধমান সুযোগ রয়েছে বলেও প্রতিবেদনে দাবি করা হয়।

অবশ্য ভারতের এর তুলনায় অনেক বেশি প্লুটোনিয়াম মজুদ রয়েছে। পাকিস্তানের তুলনায় অধিক ক্ষমতাসম্পন্ন পরমাণু বোমা তৈরিতে প্লুটোনিয়ামের প্রয়োজন রয়েছে। কিন্তু ভারত অভ্যন্তরীণ জ্বালানি তৈরিতে বেশির ভাগ প্লুটোনিয়াম ব্যবহার করছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পাকিস্তানে পরমাণু বোমার সংখ্যা বাড়ছে এবং দেশটি ক্রমেই যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া বাদে অন্যান্য দেশের চেয়ে বেশি পরমাণু বোমার অধিকারী হয়ে উঠবে।

কিন্তু ইসলামাবাদের কায়েদে আজম বিশ্ববিদ্যালয়ের পরমাণু বিশেষজ্ঞ মানসুর আহমেদ এ প্রতিবেদনের বক্তব্যের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করেন। তিনি বলেন, ‘সঠিকভাবে মূল্যায়ন করলে দেখা যাবে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে পাকিস্তানের ৪০ থেকে ৫০টি  পরমাণু বোমা তৈরির সক্ষমতা রয়েছে।

অবশ্য পাকিস্তান সামরিক বাহিনী দেশটির পরমাণু সক্ষমতা বিস্তারের চেষ্টা করছে বলে প্রতিবেদনটিতে যে দাবি করা হয়েছে সে বিষয়ে কোনো বিতর্কে যাননি এ বিশেষজ্ঞ।  প্রতিবেদনটির বিষয়ে মন্তব্যের জন্য কোনো পাকিস্তানী সেনা কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি।

এদিকে, অন্যান্য পরমাণু অস্ত্রধর দেশগুলোর মধ্যে ফ্রান্সের ৩০০টি, ব্রিটেনের ২১৫চি এবং চীনের ২৫০টি পরমাণু বোমা রয়েছে।—সুত্র বাংলাদেশ প্রতিদিন