থাইল্যান্ডে থাকার অনুমতি পেলেন সেই সৌদি তরুণী


287 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
থাইল্যান্ডে থাকার অনুমতি পেলেন সেই সৌদি তরুণী
জানুয়ারি ৮, ২০১৯ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

পরিবার থেকে পালিয়ে ব্যাংকক বিমানবন্দরে এক হোটেল কক্ষে নিজেকে অবরুদ্ধ করে রাখা সেই সৌদি তরুণী রাফাহ মোহাম্মদ আল কুনুন অবশেষে থাইল্যান্ডে থাকার অনুমতি পেয়েছেন। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের

ব্যাংকক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ৪৮ ঘণ্টার নাটকীয়তার অবসান শেষে সোমবার সন্ধ্যায় তাকে থাইল্যান্ডে থাকার অনুমতি হয় দেশটির সরকার।

ঘটনার পরপর সৌদি সরকারের অনুরোধে রাফাহ’কে প্রথমে দেশে ফেরত পাঠানোর প্রস্তুতি কথা জানিয়েছিল সৌদি সরকার। কিন্তু এ ঘটনার ভাইরাল হওয়ার পর ও মানবাধিকার সংস্থাগুলোর আহ্বানে থাই সরকার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে তাকে দেশে থাকার অনুমতি হয়।

এ বিষয়ে থাইল্যান্ডের অভিবাসন প্রধান মেজর জেনারেল সুরচিত হ্যাকপর্ন বলেন, আমরা শান্তির পক্ষে। তাই কাউকে মরার জন্য ফেরত পাঠাতে পারি না। আমরা সৌদি তরুণীর যথাযথ যত্ন নেবো।

১৮ বছর বয়সী সৌদি তরুণী রাফাহ মোহাম্মদ আল কুনুন কুয়েত থেকে আসার পর গত শনিবার থেকে ব্যাংককের হোটেল কক্ষে নিজেকে আটকে রেখেছিলেন। রাফাহ অভিযোগ করেন, দেশে ফিরলে তাকে হত্যা করা হবে। এ কারণে তিনি কুয়েতে বেড়াতে যাওয়ার পর পরিবার থেকে পালিয়ে অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছিলেন। সেখানে তিনি আশ্রয় প্রার্থনা করতেন। তবে তার এ অভিযোগ নিয়ে আত্মীয়দের কোনো মন্তব্য পায়নি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো।