দেবহাটার কুলিয়ায় আ’লীগ ও বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ : আহত-১১


414 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দেবহাটার কুলিয়ায় আ’লীগ ও বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ : আহত-১১
মার্চ ১৫, ২০১৬ দেবহাটা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আসাদুজ্জামান/ রাহাত রাজা ঃ
সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনের প্রচারণাকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগ ও আওয়ামী বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ১১ জন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে কুলিয়া ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। এ সময় ভাংচুর করা হয় ১০/১২টি মোটরসাইকেল।

আহতরা হলেন, বিদ্রোহী প্রার্থী ইমাদুল ইসলামের ভাই আসাদুল ইসলাম, ব্যক্তিগত ড্রাইভার সোহেল গাজী, সমর্থক কুলিয়া এলাকার মেম্বর মোশারফ হোসেন, আক্তারুল ইসলাম, জিয়াউর রহমান, মুকুল ও আজিজ এবং আওয়ামী লীগের প্রার্থী আসাদুল হকের ছেলে শরীফ হোসেন, ওমর ফারুক, আরিফ বিল্লাহ ও মিঠু । আহতদের সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

sat-2

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইমাদুল ইসলাম জানান, তিনিসহ তার কর্মী-সমর্থকরা ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা চালানোর জন্য মটর সাইকেলযোগে টিকেট যাওয়ার পথিমধ্যে কুলিয়া বাজার সংলগ্ন আশু মার্কেটের সামনে গেলে আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী আসাদুল হকের ছেলে শরীফ হোসেনের নেতৃত্বে ৬০/৭০ জন হকিস্টিক, রড় ও রাম দা নিয়ে নিয়ে তাদের (ইমাদুলও তার কর্মী-সমর্থকদের) উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে তার ৬জন কর্মী-সমর্থক আহত হন। এ সময় তার কর্মী-সমর্থকদের ১০/১২ টি মটরসাইকেলও ভাংচুর করা হয়। তিনি আরো জানান, তারা তার বাড়িঘর ভাংচুর ও তার জীবননাশেরও হুমকি দেয়া হচ্ছে। বর্তমানে তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন বলে জানান।

Sat-1

 

এদিকে, আওয়ামী লীগের প্রার্থী আসাদুল হক জানান, ইমাদুলের লোকজন মিছিল নিয়ে পুষ্পকাটির দিকে যাচ্ছিল। এসময় তার ছেলে শরীফসহ তার কর্মী-সমর্থকরা আশু মার্কেট এলাকায় গণসংযোগ করছিল। হঠাৎ ইমাদুলের লোকজন শরীফসহ তার কর্র্মী-সমর্থকদের উপর হামলা চালায়। এতে তার ছেলেসহ পাঁচ কর্মী-সমর্থক আহত হন।

দেবহাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে কয়েকজন আহত হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে।
এদিকে, এ খবর পেয়ে দেবহাটা ইপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা বেগম ও এ-এসপি সার্কেল মীর মনির হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।###