দেবহাটার ফাতেমা রহমান মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২য় বার জেলার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত


63 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দেবহাটার ফাতেমা রহমান মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২য় বার জেলার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত
মে ২৪, ২০২৩ দেবহাটা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আর.কে.বাপ্পা, দেবহাটা ::

দেবহাটা উপজেলার নাংলা গ্রামে অবস্থিত ফাতেমা রহমান মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০২৩ এ টানা দ্বিতীয়বার জেলার শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় নির্বাচিত হয়েছে। গত জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০২৩ এ জেলা পর্যায়ে মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে আবারো জেলার মধ্যে শ্রেষ্টত্ব অর্জন করেছে। গত বছরও অর্থ্যাৎ ২০২২ সালেও এই প্রতিষ্টানটি জেলার মধ্যে শ্রেষ্ট হয়। শিক্ষা ক্ষেত্রে এ ধরনের স্বীকৃতি পাওয়ায় উপজেলার সকল শিক্ষানুরাগী এবং বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষকসহ সকল শিক্ষকমন্ডলী, শিক্ষার্থীবৃন্দ ও ম্যানেজিং কমিটির নেতৃবৃন্দ এবং এলাকাবাসীর মধ্যে আনন্দ উচ্ছ¡াস বিরাজ করছে। তথ্য মতে, দেবহাটার নাংলার বিশিষ্ঠ সমাজসেবক মরহুম আব্দুল জলিল চেয়ারম্যানের জামাতা ১৯৯৫ সালে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার কৃতি সন্তান ও শিক্ষানুরাগী আলহাজ্ব ফসিয়ার রহমান তার সহধর্মীনি ফাতেমা রহমানের নামে এই বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠা পরবর্তী অল্প কিছুদিনের মধ্যে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষক এনামুল হক বাবলুর দক্ষ পরিচালনায় জেএসসি এবং এসএসিতে ভাল ফলাফল অর্জন করে উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে। বিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে অল্প অল্প করে একটি আদর্শ বিদ্যাপিঠে রুপান্তরিত হয়। পাকা প্রাচীর বিশিষ্ঠ বিদ্যালয়টির মনোরম পরিবেশ স্কুলের শিক্ষার্থীসহ সকলকে আকৃষ্ট করে। এছাড়া খেলাধুলাতেও এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি উপজেলা পর্যায়ে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে। চলতি ২০২৩ সালে শীতকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় ভলিবল খেলায় বিদ্যালয়টি উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে প্রথম স্থান অধিকার করে বিভাগে প্রতিনিধিত্ব করার সম্মান অর্জন করে। প্রধান শিক্ষক এনামুল হক বাবলুর নেতৃত্বে ও সকল শিক্ষকমন্ডলীর আন্তরিক প্রচেষ্টায় ধারাবাহিক সাফল্য ধরে রাখতে সকলকে উপজেলাবাসীর পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী বলেন, “এই সাফল্যে আমরা গর্বিত ও আনন্দিত”। তিনি শিক্ষার্থীদেরকে পাঠ্যক্রম ও সহপাঠ্যক্রমে সকল ধরনের সহযোগীতার আশ্বাস দিয়ে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে তাদের অনুকরণ করার আহবান জানান। বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক এনামুল হক জানান, প্রতিষ্ঠানের সাফল্য একদিনে আসে না। স্কুলের শিক্ষার মান উন্নতিকরণের পাশাপাশি বিভিন্ন জাতীয় দিবস বা সহপাঠ্যক্রমিক কার্যাবলী নিয়মিত করার চেষ্টা করেন এবং খেলাধুলাতেও সাফল্য অর্জন করার জন্যও তারা চেষ্টা অব্যাহত রাখেন বলে প্রধান শিক্ষক জানান। তিনি আরও জানান, স্কুলটির সকল শিক্ষক কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা আন্তরিকতার সাথে তাদের দায়িত্ব পালন করে বলে আজ এই সাফল্য। ম্যনেজিং কমিটির সভাপতি অহিদুজ্জামান এই সাফল্যের জন্য স্কুলের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে এই সাফল্য ধরে রাখতে আন্তরিকতার সাথে কাজ করার আহবান জানান।