দেবহাটার ৫টি ইউনিয়নে ৯৫ হাজার ভোটার ভাগ্য নির্ধারন করবে ১৪ চেয়ারম্যান প্রার্থীর


369 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দেবহাটার ৫টি ইউনিয়নে ৯৫ হাজার ভোটার ভাগ্য নির্ধারন করবে ১৪ চেয়ারম্যান প্রার্থীর
মার্চ ২০, ২০১৬ দেবহাটা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আর.কে.বাপ্পা, দেবহাটা :
দেবহাটা উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে ৯৫ হাজার ভোটার ভাগ্য নির্ধারন করবেন ১৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ আড়াই শতাধিক ইউপি সদস্য ও সংরক্ষিত আসনের প্রার্থীদের। উপজেলাব্যাপী মোট ভোটার ৯৪ হাজার ৪শত ৭১ জন। তার মধ্যে পুরুষ ভোটার ৪৭ হাজার ৫শত ৮৭ ও মহিলা ভোটার ৪৬ হাজার ৮শত ৮৪জন। এবার অপেক্ষার পালা শেষ করে ভাগ্য নির্ধারন হবে প্রার্থীদের আর ভোটাররা বেছে নেবেন তাদের আগামী ৫ বছর কে প্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হয়ে সেবা করবেন। আর সেজন্য খুব বেশী সময় অপেক্ষা করতে হবেনা তাদের। মাত্র কয়েকটা ঘন্টা। দেবহাটার ৫টি ইউনিয়নে আঃলীগের ৫ জন, বিএনপির ৪ জন ও স্বতন্ত্র ৫ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ভোট যুদ্ধে নেমেছেন। প্রার্থীদের মধ্যে কুলিয়া ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আঃলীগ সমর্থিত আসাদুল হক নৌকা প্রতিক, স্বতন্ত্র সফটরক গ্রুপের চেয়ারম্যান ইমাদুল ইসলাম আনারস প্রতিক নিয়ে লড়ছেন। পারুলিয়া ইউপিতে আঃলীগ সমর্থিত সাইফুল ইসলাম নৌকা প্রতিক, বিএনপি সমর্থিত গোলাম ফারুখ বাবু ধানের শীষ প্রতিক, স্বতন্ত্র শফিকুর রহমান আনারস প্রতিক ও স্বতন্ত্র আবু হাসান চশমা প্রতিক নিয়ে লড়ছেন। সখিপুর ইউনিয়নে আঃলীগ সমর্থিত শেখ ফারুক হোসেন নৌকা প্রতিক ও বিএনপি সমর্থিত মোখলেছুর রহমান ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে লড়ছেন। নওয়াপাড়া ইউনিয়নে আঃলীগ সমর্থিত মুজিবর রহমান নৌকা প্রতিক ও বিএনপি সমর্থিত রেজাউল করিম ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে লড়ছেন। সর্বশেষ দেবহাটা সদর ইউনিয়নে ৪ জন প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আঃলীগ সমর্থিত নজরুল ইসলাম নৌকা প্রতিক, বিএনপি সমর্থিত আব্দুল হাবিব মন্টু ধানের শীষ, স্বতন্ত্র আব্দুল মতিন চশমা প্রতিক ও স্বতন্ত্র আবুবকর গাজী আনারস প্রতিক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে আছেন। দেবহাটা উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, উপজেলায় মোট ৪৮ টি ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহন করা হবে। কুলিয়ায় ২১ হাজার ৪শত ৮৫ জন, পারুলিয়ায় ২৩ হাজার ৪শত ৪৩ জন, সখিপুরে ১৫ হাজার ৪শত ৭১ জন, নওয়াপাড়ায় ২১ হাজার ৪শত ৪১ জন এবং দেবহাটা সদর ইউনিয়নে ১২ হাজার ৬শত ৩১ জন ভোটার রয়েছেন। এই ভোটাররাই নির্ধারন করবেন তাদের পরবর্তী নেতা বা সেবক। প্রশাসনের পক্ষ থেকে ভোট নিরবিচ্ছিন্ন ও শান্তিপূর্নভাবে সম্পন্নের জন্য সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান ও মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আলহাজ্ব আব্দুল গনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ ভোট যাতে নির্বিঘেœ হতে পারে সেজন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে কয়েকদফা মিটিং করে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তহমিনা খাতুন বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ ভোট শান্তিপূর্নভাবে করার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সবধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। দেবহাটা থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান ইউনিয়ন পরিষদ ভোটে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে উল্লেখ করে বলেন, ভোটাররা যাতে শান্তিপূর্নভাবে ভোট দিতে পারে এবং এলাকার শান্তিশৃঙ্খলা বজায় থাকে সেজন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদা তৎপর।