দেবহাটায় ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো বাল্য বিবাহ


353 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দেবহাটায় ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো বাল্য বিবাহ
অক্টোবর ১৪, ২০১৫ দেবহাটা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

দেবহাটা প্রতিনিধি :
দেবহাটা উপজেলার পারুলিয়াতে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো এক ছাত্রীর বাল্য বিবাহ। রক্ষা পেল ওই ছাত্রীর ভবিষ্যত জীবন। অন্যদিকে ইউএনও’র অভিযানের সংবাদ পেয়ে ছাত্রীর পিতা ও অন্যান্যরা পালিয়ে বাচলেও মামাকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ইউএনও শাস্তি প্রদান করেন।
জানা গেছে, উপজেলার পারুলিয়া মৃধাপাড়া গ্রামের হাফিজুর রহমানের মেয়ে কুলিয়া এলাহী বক্স দাখিল মাদ্রাসার ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী খাদিজা খাতুন (১৩) এর সাথে পার্শ্ববর্তী সালেক মৃধার ছেলে হেলাল মৃধা (১৬) এর সাথে বুধবার দুপুরে বিবাহ ঠিক করা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তহমিনা খাতুন উপজেলা মিহলা বিষয়ক কর্মকর্তা মিসেস নাজমুন্নাহার, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা জয়নাল আবেদিন, পারুলিয়া ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিন্নুর সহ ইউপি সদস্যদেরকে নিয়ে বিয়ে বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করেন।

এসময় সকলে পালিয়ে গেলেও খাদিজার মামা শ্যামনগর উপজেলার বংশীপুর গ্রামের আনসার আলীর ছেলে আব্দুস সালাম (৩৫) কে ভ্রাম্যমান আদালতে ২৫ দিনের বিনাশ্রম সাজা প্রদান করেন।