দেবহাটায় করোনা সতর্কতায় ১৯টি টিম মাঠে


258 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দেবহাটায় করোনা সতর্কতায় ১৯টি টিম মাঠে
মার্চ ২৩, ২০২০ দেবহাটা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আর.কে.বাপ্পা, দেবহাটা ॥
দেবহাটায় ইউএনওর উদ্যোগে করোনা সতর্কতায় প্রশাসনের পাশাপাশি বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বয়ে ১৯ টি মাঠে কাজ করছে। করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করতে সাধারণ মানুষের পাশে দাড়িয়েছে “দেবহাটা ক্যাটারিং সার্ভিস”সহ ” বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। তারা প্রশাসনের পাশাপাশি স্বেচ্ছায় সেবা দিয়ে চলেছে অবিরাম। দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরীনের সহযোগিতায় মাস্ক, জীবানুনাশক হ্যান্ড স্প্রেসহ সচেতনমূলক লিফলেট বিতরণ করে সাধারণ মানুষকে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সতর্ক করছে তারা। দেবহাটা উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে সচেতনতামূলক প্রচারে সবাইকে বলা হচ্ছে বেশি বেশি হাত ধুতে, বাইরে থেকে এসেই আগে নিজের কাপড় ডিটারজেন দিয়ে ধুয়ে ফেলতে, সাবান দিয়ে গোসল করতে এবং প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে। তামাক জাতীয় দ্রব্য যেমন (সিগারেট, তামাক) না থেকে এবং যেখানে সেখানে থু থু ফেলা যাবে না। সাথে সাথে যেসব দোকানে ক্রেতার ভীড় বেশি সে সব দোকানের সামনে জীবানুনাশক স্প্রে রাখতে যাতে ক্রেতারা দোকানের ভিতরে ঢোকার আগে হাত ধৌত করে ঢুকতে পারে। দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরীন করোনা সতর্কতায় উপজেলার বিভিন্ন স্থানে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পর্যবেক্ষন ও সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করছেন। দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে প্রশাসনের ৫টি টিম প্রত্যেকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করেন এবং প্রত্যেকের বাড়িতে বাড়িতে লাল পতাকা ও হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের হাতে কোয়ারেন্টাইন সিল মেরে দেয়া হচ্ছে। দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরীন গত ১লা মার্চ থেকে ২৩ মার্চ বিকাল ৪ টা পর্যন্ত মোট ১৬০ জন ব্যক্তি হোম কোয়ারেন্টাইনে আঝে জানিয়ে বলেন, সকলের করোনা ভাইরাস সম্পর্কে স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত ও সকলকে সচেতন করার জন্য কাজ করা হচ্ছে। বর্তমান বৈশ্বিক সমস্যা করোনায় আতঙ্কিত না হয়ে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহনের মাধ্যমে নিরাপদ থাকার আহ্বান জানিয়ে ইউএনও আতর্কিত না হয়ে সজেতন হওয়া পরামর্শ দেন। প্রশাসনের ১৯টি টিমের পাশাপাশি পুলিশের ৪টি টিম ও বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সমাজসেবী সংগঠন করোনা সতর্কতায় কাজ করছে জানান ইউএনও। ইউএনও উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তি ও তাদের পরিবারবর্গসহ বিভিন্ন এলাকায় মাস্ক প্রদান করছেন।