দেবহাটায় মিথ্যা হয়রানির কারনে ভুক্তভোগী পরিবারের সংবাদ সম্মেলন


127 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দেবহাটায় মিথ্যা হয়রানির কারনে ভুক্তভোগী পরিবারের সংবাদ সম্মেলন
আগস্ট ৬, ২০২০ দেবহাটা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

দেবহাটা প্রতিনিধি ::

দেবহাটায় মিথ্যা ও নাটক সাজিয়ে হয়রানির কারনে ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহষ্পতিবার সকাল ১১ টায় দেবহাটা প্রেসক্লাবে উক্ত সাংবাদিক সম্মেলন করেন উপজেলার সখিপুর গ্রামের মৃত বাবর আলী সরদারের ছেলে ব্যবসায়ী আকবর আলী। তিনি সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, তিনি ও তার ছোট ভাই আজগার ভাই দীর্ঘদিন বিদেশে থেকে বর্তমানে ২ ভাই সখিপুরস্থ পৈত্রিক ভিটায় পরিবার পরিজন নিয়ে শান্তিপূর্নভাবে বসবাস করছেন। কিন্তু পাশ্ববর্তী নুর ইসলামের ছেলে কবির হোসেন জমি কিনে বসবাস করার পর থেকে তারা বিদেশে থাকাকালীন সময় থেকে তাদের পরিবার পরিজনের সাথে নানা কারনে অন্যায়ভাবে ঝগড়া বিবাদ বাধাতে থাকে। এ নিয়ে স্থানীয়রা অনেকবার শালিস মিমাংসা করে দিয়েছে। সম্প্রতি তারা বাড়ি আসার পর থেকে কবির হোসেন ও তার স্ত্রী শামিমা ইয়াসমিন সাথী বিভিন্ন অজুহাতে তাদেরকে পৈত্রিক ভিটা থেকে উ”্ছদে করার জন্য নানাভাবে ঝগড়া করে। তারা এ বিষয়ে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদেরকে অবহিত করে রেখেছেন বলে তিনি জানান। গত ইং ০৫-০৮-২০২০ তারিখে সকাল ১০ টার দিকে তারা ২ ভাই কর্মের প্রয়োজনে বাইরে গেলে কবির হোসেনের বাড়িতে আসা ডেকোরেটরের মালামাল ভুলক্রমে তার বাড়িতে নিতে আসলে তখন তার স্ত্রী সালমা খাতুন ঐ ডেকোরেটরের মামলামাল নিয়ে টমটম ভ্যানের চালককে কবির হোসেনের বাড়ি দেখিয়ে দিয়ে তাদেরকে সেখানে যেতে বলে। এসময় কবির হোসেনের স্ত্রী শামিমা ইয়াসমিন সাথী অন্যায়ভাবে গায়ে পড়ে তাদের বাড়িতে এসে তার স্ত্রীর সাথে ঝগড়া বিবাদে লিপ্ত হয়। এসময় তার স্ত্রী এর প্রতিবাদ করলে সাথী তার স্ত্রীকে মারার জন্য চড়াও হয়। তখন তার স্ত্রী ও ছোট ভাইয়ের স্ত্রী ফারহানা আক্তার গায়ে পড়ে ঝগড়া না করার জন্য কবিরের স্ত্রী সাথীকে নিষেধ করে। পরে সাথী তার বাড়িতে গিয়ে তাকে মারধর করছে বলে চিৎকার করে মিথ্যা কথা বলে প্রচার দেয়। কিন্তু সাথীর সাথে কোন ধরনের মারামারির ঘটনা ঘটেনি। বিষয়টি ঐ ডেকোরেটরের মালিক আকবর, কবির হোসেনের মা আছিয়া খাতুন ও প্রতিবেশী মোনাজাতের ছেলে শাওন হোসেন ঘটনার সময় প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে ছিল। কিন্তু এই তুচ্ছ ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে কবির হোসেন ও তার স্ত্রী সাথী অসৎ উদ্দেশ্য সাধনের জন্য তাদের বিরুদ্ধে কয়েকটি পত্রিকায় মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করিয়ে তাদের সম্মান হানীর অশুভ তৎপরতা চালাচ্ছে, এমনকি থানায় একটি মিথ্যা অভিযোগ দায়েরের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে বলে আকবর আলী সম্মেলনে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, কবির হোসেন এলাকায় একজন বখাটে ও খারাপ প্রকৃতির ছেলে এবং তার স্ত্রী সাথীর আগে একটি বিয়ে ছিল। সাথী তার পূর্বের স্বামীকে ফেলে কবির হোসেনকে বিয়ে করে এখানে এসে বসবাস করে এলাকার পরিবেশটা নষ্ট করছে। এছাড়া কবির হোসেন তার অপকর্মের জন্য ইতিপূর্বে কয়েকবার জেলহাজতে ছিল। কবির হোসেন ও তার স্ত্রী তাদের সাথে ছাড়াও গ্রামের অনেকের সাথে ঝগড়াঝাটি ও বিবাদে লিপ্ত থাকে। এমনকি কবির হোসেন তার আপন পিতামাতার সাথেও একাধিকবার গন্ডগোল বিবাদ করে। প্রশাসনের কাছে তিনি ঘটনার সুষ্টু তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা এবং সাথে সাথে কবির হোসেন ও তার স্ত্রী এধরনের কাজ করে এলাকার পরিবেশ নষ্ট করছে তার সুবিচার প্রার্থনা করেন।

#