দেবহাটায় ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন


188 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দেবহাটায় ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন
আগস্ট ১৩, ২০২০ দেবহাটা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

দেবহাটা প্রতিনিধি ::

দেবহাটায় মিথ্যা মামলায় ফাসাতে ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। দেবহাটা প্রেসক্লাবে বৃহষ্পতিবার বিকাল ৫ টায় উক্ত সংবাদ সম্মেলনটি করেন উপজেলার নোড়ার চক গ্রামের মৃত উমাচরন মন্ডলের ছেলে বাবুরাম মন্ডল (৪০)। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, তিনি নোড়ারচক যুব সংঘের সভাপতি। তিনি দীর্ঘদিন ধরে এলাকার যুবকদেরকে নিয়ে সুনামের সহিত ক্লাবটিতে সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। গত মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) নোড়ারচক মন্দিরে জন্মষ্টমীর অনুষ্ঠান হওয়ায় তিনি সেখানে অবস্থান করছিলেন। ঐদিন রাত সাড়ে ১০টার দিকে কৃষ্ণপদ মন্ডলের পুত্র ক্লাবের সদস্য পলাশ মন্ডলের ডাক ও চিৎকার শুনতে পেয়ে সেখানে উপস্থিত হয়ে দেখি একই এলাকার মৃত কার্তিক মন্ডলের পুত্র ভূমিদস্যু কেনা মন্ডল পলাশকে লাঠি দিয়ে মারপিট করছে। আমি সেখানে উপস্থিত হওয়া মাত্র নোড়ারচক মন্দিরে জন্মষ্টমীর অনুষ্ঠানে থাকা শতাধিক নারী পুরুষও সেখানে হাজির হয়। এসময় সেখানে উপস্থিত হওয়া স্থানীয় জনতার সামনে ভূমিদস্যু কেনা মন্ডল একই এলাকার শুরেন মন্ডলের পুত্র অজিত মন্ডলকেও হাত দিয়ে চড় ও কিল মারতে থাকে। এসময় আমিসহ স্থানীয়রা পলাশকে মারপিট করার কারণ জানতে চাইলে স্থানীয় জনতার সামনে পলাশ জানান, তিনি কিছুক্ষন আগে ঐ পথ দিয়ে ঘেরে যাচ্ছিলেন। সেসময় কেনা মন্ডল একই এলাকার সঞ্জয় মন্ডলের স্ত্রী মিনতি মন্ডলের সাথে তার ঘেরের বাসায় আপত্তিকর অবস্থায় অসামাজিক কাজে লিপ্ত ছিলেন। এসময় পলাশ তার হাতে থাকা টর্চ লাইট জ¦ালালে কেনা ক্ষিপ্ত হয়ে পলাশকে লাঠি দিয়ে মারছে। এরই মধ্যে ভূমিদস্যু কেনা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার সাঙ্গ পাঙ্গদেরকে সেখানে ডেকে নিয়ে আসে। সাঙ্গ পাঙ্গরা সেখানে উপস্থিত হয়ে কেনাকে বাঁচাতে স্থানীয় জনতাদেরকে আটকে রাখার চেষ্ঠা করে। ততক্ষণে কেনা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এরই মধ্যে মিনতি ঘেরের জলে থাকা ককসিট মাথায় দিয়ে সেখান থেকে পালানোর চেষ্টা করে। বিষয়টি স্থানীয় জনতা দেখতে পেলে তাদের মধ্যে থাকা কিছু মহিলা মিনতিকে ঘেরের জল থেকে উঠিয়ে তাকে আটকিয়ে রাখে। আমি শুধুমাত্র বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামকে জানালে তিনিই দেবহাটা থানা পুলিশকে অবহিত করলে থানা পুলিশের সদস্যরা সেখানে উপস্থিত হলে পরিবেশ শান্ত হয়। কিন্তু উক্ত ঘটনাকে ভিন্ন খাতে নিয়ে যাওয়ার জন্য বৃহস্পতিবার স্থানীয় কয়েকটি পত্রিকায় আমাকে ও আমার এলাকার সন্তোষ বিশ^াসের পুত্র রাজীব বিশ^াস, শশীভূষন বিশ^াসের পুত্র শিবনাথ বিশ^াস, সুরেন্দ্র মন্ডলের পুত্র অজিত মন্ডল, সুশীল মন্ডলের পুত্র সুপদ মন্ডল, অনাথ মন্ডলের পুত্র বিভাস মন্ডল, বাবুরাম মন্ডলের পুত্র প্রদীপ মন্ডল, রনজিৎ মন্ডলের পুত্র বিষ্ণুপদ মন্ডল, রঞ্জন মন্ডলের পুত্র শান্ত মন্ডল ও নির্মল মন্ডলের পুত্র কৃষান মন্ডলকে অপরাধী বানিয়ে মিথ্যা খবর প্রকাশ করিয়েছে। উক্ত ঘটনায় আমি সহ উল্লেখিত ব্যক্তিরা জড়িত ছিলনা। তিনিা উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি প্রকৃত ঘটনা জেনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে নোড়ারচক এলাকার শতাধীক ব্যক্তি উপস্থিত হয়ে আরো জানান, মিনতি রানী কয়েক বছর পূর্বে একই এলাকার মৃত নিতাই বিশ^াসের পুত্র রনজিত বিশ^াস (মানা) কে প্রেমের ফাদে ফেলে দেশ ছাড়া করেছে। তাছাড়া ইতিপূর্বে বহু পুরুষের সাথে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন। সম্প্রতি এক থেকে দেড় বছর ধরে কেনা মন্ডলের সাথে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তুলেছেন তিনি। তাছাড়া কেনা মন্ডল ইতিপূর্বে একই এলাকার ঠাকুর চরণ মন্ডলের স্ত্রীর সাথে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলায় তারাও দেশ ছাড়া হয়েছেন। স্থানীয়রা আরো জানান, আমরা সবসময় ভূমিহীনদের বিপদ আপদে তাদের পাশে দাড়িয়েছি। আমরা কখনোই ভূমিহীনদের বিপক্ষে নয়। এবিষয়ে দেবহাটা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান বাবুরাম মন্ডল।