দেবহাটায় হয়রানির প্রতিবাদে চাউল ব্যবসায়ীদের সংবাদ সম্মেলন


176 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দেবহাটায় হয়রানির প্রতিবাদে চাউল ব্যবসায়ীদের সংবাদ সম্মেলন
এপ্রিল ২৩, ২০২০ দেবহাটা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আর.কে.বাপ্পা, দেবহাটা ::

দেবহাটায় হয়রানি মূলক সংবাদ প্রকাশ করে ব্যবসায়ীদের সুনাম নষ্ট ও হয়রানি করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন উপজেলার সখিপুর বাজারের চাউল ব্যবসায়ীরা। বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় দেবহাটা প্রেসক্লাবের অস্থায়ী কার্যালয়ে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন চাউল ব্যবসায়ীদের পক্ষে সখিপুর বাজারের চাউল ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, গৃহবন্দি, কর্মহীন ও তীব্র খাদ্য সংকটে করোনা ভাইরাসকে ইস্যু বানিয়ে চালের বাজার অস্থিতিশীল করে তুলে আমি সহ সখিপুর বাজারের চাল ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন, বাবুর আলী, শফিকুল ইসলাম, ওয়াজেদ আলীর বিরুদ্ধে যে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। তিনি আরো বলেন, চলমান বিশ্বে করোনায় চাউলের বাজার বৃদ্ধি পাওয়ায় পূর্বের মূল্য ছাড়া বস্তা প্রতি দাম সামান্য বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রকৃতপক্ষে আমরা অতিসুনামের সাথে চাউল ব্যবসা পরিচালনা করে আসছি। আমাদের ব্যবসার বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান অবহিত আছেন। আমরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশনা মেনে চাল ক্রয় বিক্রয় করছি। এখানে মজুদ করে সাধারণ ক্রেতাদের কোন ক্ষতিগ্রস্থ করা হচ্ছে না। গতকয়েকদিন পূর্বে চালের দাম বস্তাপ্রতি বৃদ্ধি হওয়ায় চলমান বাজারে চাউলের দাম বেড়েছে। আমরা প্রশাসনের নির্দেশনা মোতাবেক কেনা দাম ছাড়া মাত্র ১০/১৫ টাকা লাভে বস্তাপ্রতি চাউল বিক্রয় করছি। আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ এনে যে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। আমরা সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা মেসার্স রাকিব অটো রাইচ মিল, কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা হাটখোলার মেসার্স বিশ্বাস চাউল ভান্ডার, সাতক্ষীরার চালতেতলা বাজারের তাপস এগ্রো ইন্ডাষ্ট্রীজ, দহকুলার মেসার্স আলাউদ্দীন এগ্রোফুড থেকে চাউল ক্রয় করছি। আমাদের কেনা চাউলের প্রতিটি চালানের বিল ভাউচার রয়েছে। তাছাড়া প্রতিদিনের বাজার দর বোর্ডের মাধ্যমে দোকনের সামনে টানিয়ে রাখি। কিন্তু একটি মহল আমাদের সুনাম নষ্ট ও বাজারকে অস্থিতিশীল করার অশুভ চক্রান্তে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য দিয়ে মনগড়া সংবাদ প্রকাশ করেছে। বর্তমানে সংকটময় পরিস্থিতিতে খাদ্যের ঘাটতি পুরণ করে যাতে সুষ্ট ভাবে ব্যবসা পরিচালনা করতে পারি সে জন্য প্রশাসনের সুষ্ট তদারকি ও হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

#