দেবহাটার কুলিয়া ভারতীয় গলদা রেনু বিক্রির নিরাপদ রুট


209 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দেবহাটার কুলিয়া ভারতীয় গলদা রেনু বিক্রির নিরাপদ রুট
এপ্রিল ২৩, ২০২১ দেবহাটা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পুলিশের হাতে ৪৪ টি পলিথিনের বড় বলসহ ৪ জন আটক

আর.কে.বাপ্পা, দেবহাটা প্রতিনিধি ॥
দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া মৎস্য সেডের আশেপাশের এলাকা ভারতীয় গলদা রেনু বিক্রির নিরাপদ রুটে পরিনত হয়েছে । গত কয়েকদিন যাবৎ একটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে সীমান্ত নদী ইছামতি থেকে চোরাই পথে পার হয়ে এই সমস্ত এলাকায় দেশীয় গলদা রেনুর আদলে একটি অশুভ চক্র এই ভারতীয় রেনু বিক্রি করছে। বৃহষ্পতিবার এমন একটি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে দেবহাটা থানার ওসি বিপ্লব কুমার সাহার নির্দেশনায় এসআই হাফিজুর রহমান ৪৪ টি পলিথিনের বড় বলে ভর্তি ভারতীয় গলদা রেনুসহ ৪ জনকে আটক করেছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে দেবহাটা থানায় একটি মামলা হয়েছে এবং আটককৃতদেরকে আদালতের মাধ্যম জেলহাজতে প্রেরন করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুলিয়া মৎস্য সেডে বিগত কয়েকদিন বা মাস যাবৎ ভারতীয় গলদা রেনু বিক্রি হচ্ছে বলে খবর ছিল। এই সিন্ডিকেটটিকে ধরার জন্য গোয়েন্দা নজরদারির মাধ্যমে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম (বার) এর দিক নির্দেশনায় দেবহাটা থানার ওসি বিপ্লব কুমার সাহার নেতৃত্বে এসআই হাফিজুর রহমান ২২/০৪/২০২১ তারিখ দেবহাটা থানাধীন বালিয়াডাঙ্গা সাকিনের কুলিয়া আশুমার্কেট নামক স্থানে তিন রাস্তার মোড়ে সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ মহাসড়কের উপর থেকে ৪৪ টি ভারতীয় গলদা রেনুর পলিথিনের বড় বলসহ চারচাকা বিশিষ্ট পিকআপ আটক করা হয়। এসময় ৪জনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দ সরকারের ছেলে পরিমল সরকার (৩৫), একই উপজেলার খগেন কুমারের ছেলে হারাধন (৪৫), একই উপজেলার সোবহান মোড়লের ছেলে সাগর হোসেন (৩০) ও একই উপজেলার ইয়াছির আরাফাতের ছেলে মেহেদী হাসান। তাদের বিরুদ্ধে এসআই হাফিজুর রহমান বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে দেবহাটা থানায় ০৯ নং মামলা দায়ের করেছেন। ওসি বিপ্লব কুমার সাহা জানান, দীর্ঘদিন এই চক্রটি কুলিয়া এলাকায় ভারতীয় গলদা রেনু এনে বিক্রি করছে। এতে দেশীয় রেনু ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। তাদেরকে আটক পরবর্তী মামলা রুজু করা হয়েছে বলে ওসি জানান।