দয়ারঘাট প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটি গঠন


367 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
দয়ারঘাট প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটি গঠন
জানুয়ারি ১২, ২০১৭ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

গোপাল কুমার :

আশাশুনি সদরের দয়ারঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার স্কুল হলে রুমে অনুষ্ঠিত সভায় কমিটি গঠন করা হয়। সভায় বিভুতি ভুষন রায় সভাপতি নির্বাচিত ও সহ-সভাপতি হয়েছেন মাধ্যমিক স্কুল শিক্ষক প্রতিনিধি অমল কুমার মন্ডল।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, অভিভাবক সদস্য বিভুতি সানা, কাইকাউস হোসেন, শংকরী বৈদ্য, ফাতেমা খাতুন, মেম্বার তারক চন্দ্র মন্ডল, বিদ্যোৎসাহী সদস্য নিলিমা রানী রায়, দিজেন্দ্র নাথ রায়, শিক্ষক প্রতিনিধি বিশাখা রাণী ও সুভাস চন্দ্র এবং দাতা সদস্য সাংবাদিক সমীর রায়।
##

 

শ্রীউলায় জমির মালিককে মৎস্য ঘের ফেরত না দিয়ে অবৈধভাবে দখলে রাখার অভিযোগ

আশাশুনির শ্রীউলায় জমির মালিককে যথাসমায়ে ঘের ফেরত না দিয়ে মিথ্যার আশ্রায় নিয়ে অবৈধভাবে ঘের দখলে রাখার পায়তারার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সরজমিনে ঘুরে জানাগেছে, উপজেলার শ্রীউলা মৌজায় ডিপি খতিয়ানে ৫৪২ সহ ৩টি দাগে মোট ৩.৬৬ একর জমির মধ্য হতে ৩.৩৩ একর জমির মালিক উক্ত গ্রামের আল. নিজামুদ্দিন সরদারের পুত্র ইউপি সদস্য নাজমুল হুদা গংরা।

দীর্ঘদিন নাজমুল উক্ত ৩.৩৩ একর জমিতে মৎস্য চাষ করে আসছিলেন। গত ২০১৫ সাল থেকে ২০১৬ সালের ৩১ডিসেম্বর পর্যন্ত দু’বছরের জন্য আশাশুনি সদরের কোদন্ডা গ্রামের মৃত সামছুর রহমান ফকিরের পুত্র শফিকুল ইসলামকে বছরে বিঘা প্রতি ১০

হাজার টাকা হারে মোট এক লক্ষ টাকা চুক্তিতে জনৈক জাকির হোসেন ও আখতারুজ্জামান রিটুর মাধ্যমে মৌখিকভাবে মৎস্য চাষের অনুমোতি দেন। সে মোতাবেক গত ৩১ডিসেম্বর’১৬ তারিখে তার মেয়াদাত্তীর্ন হওয়ার ৩ মাস পূর্বে শফিকুলকে জমির মালিক নাজমুল তার বাড়ীতে ডাকলে সে হাকিয়ে দিয়ে বলে সময় হলে দেখা যাবে।

পরে জমির মালিক মেম্বর নাজমুল মধ্যস্তাকারিদের মাধ্যমে ১০অক্টোবর শফিকুলকে ২০১৭ সালে ঘেরের জমি আর দিবে না, নিজেই ঘের করবে বলে জানিয়ে দেন।

এ ব্যাপারে মেম্বর নাজমুল ২০১৭ সালে উল্লেখিত নিজের জমিতে নিজেই যাতে মৎস্য চাষ করতে পারে, সে জন্য জমি নিজ কূলে ফিরে পেতে প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
##