নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে সরকারি কর্মকর্তাদের নতুন কৌশল উদ্ভাবন করতে হবে : সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক


327 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে সরকারি কর্মকর্তাদের নতুন কৌশল উদ্ভাবন করতে হবে : সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক
সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

বিশেষ প্রতিনিধি :
সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান বলেছেন, সাধারণ মানুষের নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে প্রতিটি সরকারি কর্মকর্তাকে আন্তরিক হতে হবে। জনগনের দোরগোড়ায় নাগরিক নেবা পৌছে দিতে সরকার নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। যিনি যে দপ্তরের দায়িত্বে রয়েছেন তাকে সেই দপ্তরের নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে নতুন কিছু উদ্ভাবন করতে হবে। অফিসের একজন পিয়ন থেকে শুরু করে কর্মকর্তা পর্যায় সকলের পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে। কারণ একজন পিয়নের মাথা থেকেও ভাল পরামর্শ  আসতে পারে,যেটি নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে গুরুত্ব বহন করবে। তিনি বলেন, তথ্য প্রযুক্তিতে সাতক্ষীরা জেলাকে দেশের মধ্যে একটি মডেল জেলায় রুপান্তর করতে আমরা ইতিমধ্যে কাজ শুরু করেছি। সকল পর্যায়ের কর্মকর্তার সহযোগিতা পেলে এই কাজটি দ্রুত সম্পন্ন করা সম্ভব হবে।

বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরা সার্কিট হাউস সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত ‘নাগরিক সেবায় উদ্ভাবন বিষয়ক প্রশিক্ষণ’ কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রামের ডোমেইন স্পেশালিস্ট (উপসচিব ) মো: মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) লস্কর তাজুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক  (সার্বিক) এ,এফ,এম এহতেশামূল হক।

গত ৭ সেপ্টেম্বর খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মো: আবদুস সামাদ এই প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন ঘোষনা করেন। পৃথক ২টি ব্যাচে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক,এনজিও প্রতিনিধি, শিক্ষকসহ সেবামূলক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৬৬ জন অংশ গ্রহন করেন।

জেলা পর্যায় সাংবাদিকদের মধ্যে এই কর্মশালায় অংশ গ্রহন করেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল ও ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম সম্পাদক, এটিএন বাংলা, দৈনিক সমকালের নিজস্ব প্রতিনিধি এম কামরুজ্জামান। এছাড়া উপজেলা পর্যায় সাংবাদিকদের মধ্যে কালিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক সুকুমার দাশ বাচ্চু ও দেবহাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওহাব অংশ গ্রহন করেণ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে এই প্রশিক্ষণ কর্মশালাটি শেষ হয়েছে।

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রোগ্রামের সহযোগিতায় এ ধরণের প্রশিক্ষণ কর্মশালা সর্বপ্রথম সাতক্ষীরা দিয়েই শুরু হলো। পর্যায়ক্রমে দেশের বিভিন্ন জেলাতে এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হবে বলে আয়োজকরা ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকমকে জানিয়েছেন।

এটুআই প্রোগ্রামের প্রশিক্ষক (উপসচিব) মো: মিজানুর রহমান বলেন, এ ধরণের প্রশিক্ষণ আয়োজনের মূললক্ষ্য হচ্ছে, সমাজকে দুর্নীতিমুক্ত করা  এবং সাধারণ মানুষের নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা। বিশেষ করে সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের বিবেক জাগ্রত করা। তাদেরকে আরো বেশি মানবিক হওয়ার পরামর্শ দেওয়া। যাতে গ্রামের একজন সাধারণ লুঙ্গিপরা মানুষ যেন কোন সরকারি কর্মকর্তার কাছে সেবা নিতে এসে তার কাছ থেকে নাগরিক সেবার পরিবর্তে যেন কোন ধরণের হয়রানি, ব্যাথা বা আঘাত নিয়ে না ফেরে যায়। কোন সরকারি কর্মকর্তার কাছ থেকে যেন কোন ধরণের খারাপ আচরণ না পায়।

এই কর্মকর্তা আরও বলে, এই কর্মশালার একটি বড় উদ্দেশ্য বা লক্ষ্য হচ্ছে সাধারণ মানুষকে হয়রানি নয়, তাদেরকে কত দ্রুত সেবা দেয়া যায় সে ব্যাপারে সরকারি কর্মকর্তাদের নতুন নতুন কৌশল উদ্ভাবন করতে উদ্ভুদ্ধ করা। অফিস ব্যবস্থাপনাকে গতানুগতিক ধারার বাইরে নিয়ে এসে উদ্ভাবিত কৌশল বাস্তবায়ন করা।