নিউইয়র্কে নিখোঁজ এক বাংলাদেশি পরিবার


300 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
নিউইয়র্কে নিখোঁজ এক বাংলাদেশি পরিবার
মার্চ ১১, ২০১৬ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক :
যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক প্রবাসী বাংলাদেশি এক পরিবারের খোঁজ মিলছে না। মাহফুজা রহমান (৩০) নামে এক নারী গত ৮ ডিসেম্বর থেকে নিখোঁজ। গত ১৪ ডিসেম্বর থেকে তার স্বামী মোহাম্মদ চৌধুরী (৩৮) এবং সন্তানকেও খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ।

এভাবে নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি ‘সন্দেহমূলক’ বিবেচনা করে তদন্ত শুরু করেছে নিউইয়র্কের পুলিশ।

নিউয়র্কের বেলভিউ হাসপাতালের সহযোগী নার্স মাহফুজা রহমান গত ৮ ডিসেম্বর হাসপাতাল ত্যাগ করেন। এরপর থেকে আর হাসপাতালে যাননি তিনি। যদিও পরদিন হান্টার কলেজে (মাহফুজা ওই কলেজে পড়েন) তার সোশ্যাল সিকিউরিটি কার্ড ব্যবহার করা হয়েছে বলে তথ্য পেয়েছে নিউইয়র্কের গোয়েন্দা পুলিশ।

মাহফুজা-মোহাম্মদ দম্পতি নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে বসবাস করতেন। তাদের নয় বছরের একটি মেয়ে আছে।

গত ১৪ ডিসেম্বর মোহাম্মদ চৌধুরী বেলভিউ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানান,  বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত মা-বাবাকে দেখতে মাহফুজা দেশে এসেছেন। কয়েক সপ্তাহের মধ্যে তিনি নিউইয়র্কে ফিরে যাবেন। কিন্তু এরপর তিন মাস পার হলেও কর্মস্থলে ফিরেননি মাহফুজা। এমনকি ইমেইল বা ফোনেও বেলভিউ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেননি।

বেলভিউ হাসপাতাল বিষয়টি নিউইয়র্ক পুলিশকে জানালে মাহফুজার বাসায় ফোন করে পুলিশ। কিন্তু তিনি পুলিশের কল রিসিভ না করায় বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ হয় পুলিশের। এরপর বাংলাদেশে মাহফুজার মা-বাবার সঙ্গে কথা বলে নিউইয়র্কের পুলিশ। তারা কোনো দুর্ঘটনায় পড়েননি বলে জানান।

গত সোমবার পুলিশ ব্রঙ্কসে মাহফুজার বাসায় গিয়ে তল্লাশি চালায়। প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, তিন মাস ধরে বাসাটি তালাবদ্ধ। গত ১৪ ডিসেম্বর থেকে মোহাম্মদেরও কোনো খোঁজ নেই।

মোহাম্মদ চৌধুরী বাংলাদেশে আসার জন্য তার ট্রাভেল এজেন্টের কাছে টিকিট কেটেছেন এবং ২ ফেব্রুয়ারি নিউইয়র্কে ফিরে যাওয়ার সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করেছিলেন তিনি। পরে অবশ্য সেই তারিখ পরিবর্তন করেন। তিনি যে যুক্তরাষ্ট্র ত্যাগ করেছেন এমন কোনো তথ্যও পায়নি পুলিশ।

গত সোমবার ব্রঙ্কসের পুলিশ মাহফুজা-মোহাম্মদ দম্পতির বাড়ি তল্লাশি করে সন্দেহজনক কিছু পায়নি। তাদের বাড়ির আশপাশে কোনো বাংলাদেশি পরিবার না থাকায় এ বিষয়ে তেমন তথ্য পায়নি পুলিশ।

সর্বশেষ তাদের বাসায় সার্বক্ষণিক পাহারা বসায় নিউইয়র্ক পুলিশ। বাংলাদেশে বা তাদের নিউইয়র্কে তাদের অন্য আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হচ্ছে।

নিউইয়র্কের ব্রঙ্কস পুলিশ ইউনিটের গোয়েন্দা প্রধান জ্যাসন উইলকক্স বলেন, বেলভিউ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে মোহাম্মদ চৌধুরী যা বলেছেন তা আসলে গল্প। মূল কথা হলো মাহফুজা নিখোঁজ; আর এ কারণেই তিনি তাকে খুঁজছেন। সূত্র: ডেইলি নিউজ