নিউইয়র্কে বাংলা নতুন বছরকে বরণ


280 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
নিউইয়র্কে বাংলা নতুন বছরকে বরণ
এপ্রিল ১৮, ২০১৬ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা :
বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে যেমন খুশি সাজজীর্ণ পুরোনোকে বিদায় জানিয়ে শুভ সম্ভাবনার প্রত্যাশায় বাংলা নতুন বছরকে বরণ করতে নিউইয়র্কে প্রাণের উৎসবে মেতেছিলেন প্রবাসীরা। বর্ষবরণের আনন্দঘন বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ছিল নাচ, গান, প্যারেড, হই হল্লা আর পান্তা ইলিশ ভোজনের জমকালো আয়োজন। সাম্প্রদায়িকতাসহ সকল অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে বাঙালি চেতনা জাগ্রত রাখার প্রত্যয় ছিল প্রবাসের বাংলা নববর্ষের সব অনুষ্ঠানমালা।

পয়লা বৈশাখের দিন (বৃহস্পতিবার) বাংলাদেশ সোসাইটি ও ড্রামা সার্কেল ছাড়াও বাংলাদেশি কমিউনিটির বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে নিউইয়র্কে নানা অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়। এসব অনুষ্ঠানের বিশেষ আকর্ষণ ছিল পান্তা-ইলিশ আর হরেক রকমের ভর্তা-ভাত ভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানগুলোতে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে ঢল নামে সর্বস্তরের প্রবাসী বাংলাদেশিদের। রং বেরঙের পোশাক পরিহিত সর্বস্তরের প্রবাসীদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানস্থল পরিণত হয় উৎসবমুখর। কারও কারও ভাষায় প্রবাস হয়ে ওঠে এক টুকরো বাংলাদেশ।
যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশিদের সর্বজনীন সংগঠন হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশ সোসাইটি, নিউইয়র্ক প্রতিবছরের মতো এ বছরও বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা নতুন বছর বরণ করে। এ উপলক্ষে সংগঠনের পক্ষ থেকে সিটির উডসাইডের কুইন্স প্যালেসে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানমালার মধ্যে ছিল অতিথিদের মাঝে পান্তা-ইলিশ পরিবেশন, ফ্যাশন শো, নাটিকা, নৃত্য ও সংগীত প্রভৃতি। এ ছাড়া ছিল খাবার আর পোশাক পরিচ্ছেদের একাধিক স্টল। এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি আজমল হোসেন। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান ও কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিরাসহ সোসাইটির কর্মকর্তারা। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম হাওলাদার।
রাতে অনুষ্ঠিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সংগঠনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক মণিকা রায়। এই পর্বে প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীরা অংশ নেন। রং বেরঙের পোশাকিতে প্রবাসীদের অংশগ্রহণের ফলে সোসাইটির বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠান উৎসবমুখর হয়ে ওঠে। বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি সপরিবারে অনুষ্ঠানটি উপভোগ করেন।
নিউইয়র্কের অন্যতম সাংস্কৃতিক সংগঠন ড্রামা সার্কেল বরাবরের মতো এবারও বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠান করেছে। সিটির এস্টোরিয়ার এনটিভি ভবন মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় পয়লা বৈশাখের সন্ধ্যায়। অনুষ্ঠানে ড্রামা সার্কেল প্রাণ ও সংগঠনটির সাবেক সভাপতি নার্গিস আহমেদসহ কমিউনিটি নেতারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন সংগঠনের সভাপতি আবির আলমগীর।
ড্রামা সার্কেলের বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ ছিল মাটির সানকিতে পান্তা-ইলিশ ভোজন। অতিথিরা সারিবদ্ধভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে একে একে খাবার গ্রহণ করেন। তারা এই আয়োজনের প্রশংসা করেন। এদিকে রং বেরঙের পোশাক পরে প্রবাসীদের অংশগ্রহণের ফলে ড্রামা সার্কেলের বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠানস্থল এক টুকরো বাংলাদেশে পরিণত হয়।
দ্বিতীয় পর্বের সংক্ষিপ্ত আলোচনায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশনে নিযুক্ত স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন, নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক ও প্রবাসের রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ড. দেলোয়ার হোসেন, কমিউনিটি নেতা মোহাম্মদ আমিনুল্লাহ, অভিনেত্রী রিনা খান, রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টর মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন ও উৎসব ডটকমের সিইও রায়হান জামান প্রমুখ। আলোচনার পর শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে ড্রামা সার্কেলের শিল্পীরা ছাড়াও প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীরা সংগীত ও নৃত্য পরিবেশন করেন। যা উপস্থিত দর্শক-শ্রোতাদের মুগ্ধ করে।
বৈশাখী র‍্যালিনিউইয়র্কে প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রাণকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত জ্যাকসন হাইটসের বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের সংগঠন জ্যাকসন হাইটস বাংলাদেশি বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন (জেবিবিএ) নিউইয়র্ক বাংলা বর্ষবরণ উপলক্ষে পয়লা বৈশাখ ডাইভারসিটি প্লাজায় খোলা আকাশের নিচে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। ডাইভারসিটি প্লাজা রূপ নেয় ঢাকার রমনা বটমূলে। এলাকাটি পরিণত হয় একখণ্ড বাংলাদেশে। অনুষ্ঠানমালার মধ্যে ছিল পান্তা-ইলিশ, ভর্তা-ভাত ভোজন আর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নিউইয়র্কের বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান।
সংগঠনের সভাপতি মহসীন মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বর্ষবরণ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন মোশাররফ হোসাইন। বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আবুল ফজল দিদারুল ইসলাম, সাবেক সভাপতি সাঈদ রহমানসহ গিয়াস মজুমদার, রাশেদ আহমেদ, রফিক আহমেদ, আমিনুর রহিম ও সফিকুল ইসলাম প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।
সাংস্কৃতিক পর্বে নিউইয়র্কের বহ্নিশিখা সংগীত নিকেতনের শিল্পীরা ছাড়াও ঢাকা থেকে আগত দিনাত জাহান মুন্নী, প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী শাহ মাহবুব, সবিতা দাস, রুপা আলমগীর ও মণিকা দাস প্রমুখ সংগীত পরিবেশন করেন। তাদের পরিবেশনা উপস্থিত দর্শক-শ্রোতাদের মুগ্ধ করে।
এ ছাড়া নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের অপর সংগঠন জ্যাকসন হাইটস বাংলাদেশি বিজনেস অ্যাসোসিয়েশনের (জেবিবিএ) উদ্যোগেও বাংলা নতুন বছর বরণ ও পিঠা উৎসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ১২ এপ্রিল রোববার সিটির উডসাইডের কুইন্স প্যালেসে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালার মধ্যে ছিল আড্ডা, পান্তা-ইলিশ আর ভর্তা-ভাত ভোজন, র‍্যালি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান প্রভৃতি। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রবাসের শিল্পীরা অংশ নেন।
বিকেলে ফিতা কেটে বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান। জেবিবিএর সভাপতি জাকারিয়া মাসুদ সভাপতিত্ব করেন। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক তারেক হাসানসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। বিপুলসংখ্যক প্রবাসী সপরিবারে এই অনুষ্ঠানটি উপভোগ করেন।