নিউইয়র্কে মসজিদে শিশুকে যৌন নির্যাতন, বাংলাদেশি গ্রেফতার


349 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
নিউইয়র্কে মসজিদে শিশুকে যৌন নির্যাতন, বাংলাদেশি গ্রেফতার
সেপ্টেম্বর ১, ২০১৫ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক:
নিউইয়র্কে বাংলাদেশিদের পরিচালনাধীন একটি মসজিদে ১০ বছরের বালিকাকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ৬৩ বছর বয়স্ক এক বাংলাদেশিকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। ওজনপার্ক এলাকায় ফুলতলী মসজিদে ধর্ম-শিক্ষা গ্রহণ করতে আসা বালিকাটির অভিযোগের সত্যতা খুঁজে পাওয়া গেছে মসজিদের সার্ভিলেন্স ভিডিওতে।

এরপরই মসজিদ কমিটির লোকজন শামসউদ্দিন নামক ওই বাংলাদেশিকে পুলিশে সোপর্দ করেছেন। তার বাড়ি সিলেটের বড়লেখা উপজেলার চান্দগ্রামে। তার ৮ সন্তানের সকলেই নিউইয়র্কে একই বাসায় থাকেন।

কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট এটর্নীর অফিস থেকে ৩১ আগস্ট অপরাহ্নে এনআরবি নিউজকে জানানো হয়, গত ২৭ আগস্ট বৃহস্পতিবার দুপুর একটায় ওই যৌন হামলার ঘটনা ঘটে। শিশুটি মসজিদের বেসমেন্টের বাথরুমে যাবার সময় আক্রান্ত হয়। গ্রেফতার হওয়া লোকটি শিশুটিকে নানাভাবে যৌন হয়রানি করেন। ছেড়ে দেওয়ার সময় শিশুটিকে এসব কাউকে বলতে নিষেধ করে দেন শামসউদ্দিন। ঘটনার আকস্মিকতায় হতভম্ব শিশুটি বাসায় গিয়ে তার মাকে সবকিছু অবহিত করলে পুলিশকে বিষয়টি জানানো হয়। জানা গেছে, শিশুটি লন্ডন থেকে মায়ের সাথে আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসেছে। শামসুদ্দিনকে ৪০ হাজার ডলার বন্ডে জামিনের নির্দেশ দিয়েছেন কুইন্স ক্রিমিনাল কোর্টের মাননীয় বিচারক। ৩১ আগস্ট সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখার সময় পর্যন্ত বন্ডের অর্থ সংগৃহিত হয়নি বলে জানা গেছে।

মসজিদ কমিটির কর্মকর্তারা ক্ষুব্ধ এ ঘটনায়। গ্রেফতার হওয়া লোকটি মসজিদ কমিটির কেউ নয়। যোহরের নামাজ পড়তে এসেছিল এই মসজিদে।

এহেন অপকর্মের ঘটনায় কম্যুনিটিতে ছি ছি রব উঠেছে। সকলেই দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন। ডিস্ট্রিক্ট এটর্নী রিচার্ড এ ব্রাউন জানিয়েছেন, অভিযোগ যদি সত্য বলে প্রমাণিত হয় তাহলে তার সর্বোচ্চ শাস্তি হবেই। যেসব অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে তার সর্বোচ্চ শাস্তি হচ্ছে ৭ বছরের জেল।—সুত্র:-বাংলাদেশ প্রতিদিন।