নেইমার কাঁদলেন, সমর্থকদের কাঁদালেন


365 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
নেইমার কাঁদলেন, সমর্থকদের কাঁদালেন
এপ্রিল ২০, ২০১৭ খেলা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
রূপকথা প্রতিদিনই ধরা দেয় না। ফুটবলে অলৌকিক রাতের দেখাও সবসময় মেলে না। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে ন্যূ-ক্যাম্পে অলৌকিক রাত উপহার দিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছিল বার্সেলোনা। কোয়ার্টারের প্রথম লেগে জুভেন্টাসের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার পরও কট্টোর সমর্থকরা আরেকটি অলৌকিক রাতের অপেক্ষায় ছিলেন। কিন্তু এবার আর সেটির দেখা মেলেনি। বুধবার ন্যু-ক্যাম্পে ফিরতি পর্বে তাই জুভেন্টাসের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে বিদায় নিতে হয় কাতালানদের।

নিজেদের খারাপ সময়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে যেকোনো দলই বিদায় নিতে পারে। কিন্তু দুই লেগ মিলিয়ে জুভেন্টাসের জালে একবারও বল পাঠাতে না পারার বিষয়টি যথেষ্ট পোড়াচ্ছে বার্সা সমর্থকদের। দলটির তারকা খেলোয়াড় নেইমারও যেন এমন বিদায় মানতে পারেননি। এই ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টারের আবেগটা একটু বেশিই। ম্যাচ শেষে বাঁশি বাজতেই তাই মাঠেই কান্না শুরু করে দেন।

গত মৌসুমেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছিল বার্সেলোনা। সব মিলিয়ে সর্বশেষ চার মৌসুমেই শেষ আট থেকে বিদায় নিল ন্যূ-ক্যাম্পের দলটি। বার্সার বিদায় নিশ্চিত হওয়ার সাথে সাথেই দলটির খেলোয়াড়রা হতাশায় ভেঙে পড়েন। কেউ কারো দিকে যেন তাকাতে পারছিলেন না।নেইমার কাঁদলেন, সমর্থকদের কাঁদালেন

ম্যাচ শেষ হতেই নেইমার কাঁদছেন। তাকে সান্ত্বনা দেয়ার মতো কোনো সতীর্থ নেই। পাশ থেকে এগিয়ে এলেন দানি আলভেজ; যিনি নেইমারের জাতীয় দলের সতীর্থ এবং বার্সেলোনায়ও একসময় দুজন সতীর্থ ছিলেন। আলভেজ জড়িয়ে ধরলেন নেইমারকে। ব্রাজিলের নাম্বার টেনও নিজেকে সপেঁ দিলেন জাতীয় দলের সতীর্থের বুকে। শত শত ক্যামেরার ফ্ল্যাশ। নিজের মুখ লুকানোর জন্য আলভেকেই বেছে নিলেন নেইমার।

ব্রাজিল জাতীয় দলের হয়ে দারুণ সময়ই পার করছিলেন নেইমার। বার্সেলোনার হয়েও ছিলেন দারুণ ফর্মে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে পারলে নিশ্চিতভাবে ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড় এবং ব্যালন ডি’অরের দৌড়ে টিকে থাকতে পারতেন। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বার্সেলোনায় বিদায় নেয়ার মধ্য দিয়ে সেই সম্ভাবনাও ফিকে হয়ে গেল।