পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) আজ


376 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) আজ
ডিসেম্বর ১৩, ২০১৬ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক :
আজ মঙ্গলবার ১২ রবিউল আউয়াল পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)। আজ থেকে এক হাজার ৪৪৬ বছর আগে এ দিনে জন্মগ্রহণ করেন শান্তির ধর্ম ইসলামের প্রচারক, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মানব, সাইয়েদুল মোরসালিন হজরত মুহাম্মদ (সা.)। এর ৬৩ বছর পর একই তারিখে ইন্তেকাল করেন রাসূল (সা.)। বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর জন্য দিনটি একই সঙ্গে আনন্দ ও বেদনার। ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) বা সীরাতুন্নবী (সা.) হিসেবে যথাযোগ্য মর্যাদায় ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করেন ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা।

বিশ্ব যখন পৌত্তলিকতার অন্ধকারে ডুবে ছিল, তখন মহান আল্লাহতায়ালা মহানবীকে (সা.) মানবজাতিকে পথ দেখাতে পৃথিবীতে প্রেরণ করেন। মক্কার কুরাইশ গোত্রের সাধারণ পরিবারে জন্ম নেন তিনি। ৪০ বছর বয়সে নবুয়ত লাভ করেন। কুসংস্কার, গোঁড়ামি, অন্যায়, অবিচার ও দাসত্বের শৃঙ্খল ভাঙতে রাব্বুল আলামিনের পক্ষ থেকে মুক্তির বার্তা আনেন মানবজাতির জন্য। এরপর মহানবী (সা.) দীর্ঘ ২৩ বছর এ বার্তা প্রচার করে ৬৩ বছর বয়সে ইহলোক ত্যাগ করেন।

ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে সারাবিশ্বের মুসলমানদের মতো বাংলাদেশেও ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা পারিবারিক ও সামাজিকভাবে নানা অনুষ্ঠান পালন করে থাকেন। এর মধ্যে রয়েছে নফল নামাজ আদায়, কোরআনখানি ও মিলাদ মাহফিল।

ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া পৃথক বাণী দিয়েছেন। বাণীতে তারা দেশবাসীসহ মুসলিম উম্মাহর সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান। একই সঙ্গে মহানবী (সা.)-এর জীবনাদর্শ অনুসরণ করে ভ্রাতৃত্ববোধ ও মানবকল্যাণে ব্রতী হতে সবার প্রতি আহ্বান জানান।

ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে আজ সরকারি ছুটির দিন। বন্ধ থাকবে সংবাদপত্রও। দেশের সব সরকারি- বেসরকারি টেলিভিশন ও রেডিও চ্যানেল দিনটিতে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর (সা.) গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করবে। সংবাদপত্রগুলোও বিশেষ নিবন্ধ প্রকাশ করেছে।

ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) যথাযথ মর্যাদায় পালনে বিভিন্ন ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল এবং বিভিন্ন সামাজিক, ধর্মীয় সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আলোচনা, মিলাদ, দোয়া মাহফিল প্রভৃতি।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন পক্ষকালব্যাপী অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করছে ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে। সোমবার বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে এর উদ্বোধন করেন ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান। ২৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন বাদ মাগরিব বায়তুল মোকাররম মসজিদের পূর্ব সাহানে ওয়াজ মাহফিল করা হবে। ১৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত মসজিদ মিলনায়তনে সপ্তাহব্যাপী বাদ আসর সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে। গতকাল থেকে মসজিদ চত্বরে শুরু হয়েছে মাসব্যাপী ইসলামী বইমেলা।

বাদ আসর মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে জাতীয় প্রেস ক্লাব। ক্লাবের নামাজঘরে অনুষ্ঠিতব্য এ মিলাদে সভাপতি মুহাম্মদ শফিকুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম চৌধুরীসহ ক্লাবের সদস্যরা অংশ নেন।

সীরাতুন্নবী (স.) উদযাপন জাতীয় কমিটির উদ্যোগে গতকাল সন্ধ্যায় রাজধানীর খামারবাড়ী কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ‘রাহমাতুলিল্লা আলামীন’ শিরোনামে হামদ-না’ত ও গজলসন্ধ্যার আয়োজন করা হয়।

প্রতি বছরের মতো এবারও আশেকানে মাইজভাণ্ডারি শাহজাহানপুর রেল কলোনি মাঠ থেকে জশনে জুলুশের আয়োজন করেছে। আঞ্জুমানে রহমানিয়া মইনিয়া মাইজভাণ্ডারির উদ্যোগে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শান্তি মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সেহাবীয় দরবার শরিফ শোভাযাত্রার আয়োজন করবে। বেলা ১১টায় হোসেনী দালান থেকে জশনে জুলুশ শোভাযাত্রার আয়োজন করেছে আহলা দরবার শরিফ।