পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির গাফিলাতির শিকার ব্রহ্মরাজপুরের ৮৬ পরিবার


396 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির গাফিলাতির শিকার ব্রহ্মরাজপুরের ৮৬ পরিবার
ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

এম আর মিঠু ::
সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নের ব্রহ্মরাজপুর ঋষিপাড়া ও চেলারডাঙ্গা গ্রামে পল্লী বিদ্যুতের গাফিলাতিতে উদ্বোধনের গ্যাড়াকলে পড়ে ৮৬ পরিবারে বিদ্যুৎ জ্বলছে না বলে বে-কায়দায় পড়েছে ভুক্তভোগীরা। এ নিয়ে পল্লী বিদ্যুৎ গ্রাহকদের মাঝে দারুন ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।
জানা যায়, প্রায় ৮ মাস পূর্বে ব্রহ্মরাজপুর ঋষিপাড়া ও চেলারডাঙ্গা গ্রামে পল্লী বিদ্যুতের নতুন লাইন নির্মান হয়। লাইন নির্মানের ১৫ দিন পর পল্লী বিদ্যুতের ৮৬ জন মিটার প্রত্যাশী নির্ধারিত হারে নিয়ম মাফিক পাটকেলঘাটা সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিতে টাকা জমা দেন। দীর্ঘ কালক্ষেপন শেষে চলতি মাসের ২ ফেব্রুয়ারী  গ্রাহকদের সকলের বাড়িতে বৈদ্যুতিক মিটারও ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে। কিন্তু মিটার পেলেও শুধুমাত্র সংযোগের অফেক্ষায় থাকা এসব পরিবারগুলো এখনো নিদারুন কষ্ট ভোগ করছে। এসব গ্রাহকরা একাধিকবার পল্লী বিদ্যুত সমিতি কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেও কোন ফল পাচ্ছে না। তাদেরকে সমিতি থেকে জানানো হচ্ছে উদ্বোধন হলেই মিলবে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ। এরপর গ্রাহকরা উদ্বোধনের জন্য বিভিন্ন পর্যায়ে যোগাযোগ শুরু করে। কিন্তু সঠিক কোন সমাধান মিলেনি। সর্বশেষ সাতক্ষীরা সদর-২ আসনের সংসদ সদস্যের সাথেও এসব গ্রাহকরা যোগাযোগ করলে প্রথম দিকে আশার আলো সঞ্চার হলেও সেটিরও এখন কোন খবর নেই বলে কয়েকজন গ্রাহক জানান। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষনা অনুযায়ী ২০১৯ সালের মধ্যে প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি থাকলেও সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কাজের এমন ধীরগতি কতটা সাফল্য পাবে তা নিয়ে রীতিমত বিদ্যুৎ প্রত্যাশীদের মাঝে বিভিন্ন প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। ব্রহ্মরাজপুর ঋষিপাড়ার ভবেন দাস, রমেন দাস, সত্য দাস ও চেলারডাঙ্গা গ্রামের ড্রাইভার আব্দুস সালাম মোল্যা, জব্বার মোল্যা, ছাত্তার মালী, রহিম মালী, গ্রাম্য চিকিৎসক শফিকুল ইসলাম, নুরুজ্জামান, আছের আলী, ফারুক, আদর আলী এ প্রতিবেদককে জানান, কয়েকমাস ধরে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে চরম সমস্যায় ভুগছি। বিভিন্ন দ্বারে দ্বারে ঘুরেও এটির কোন প্রতিকার হচ্ছে না। মূলত সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তাদের গাফিলাতিতে কাজ শেষ হওয়ার পরেও আমরা বিদ্যুৎ সংযোগ থেকে দূরে আছি। উদ্বোধনের দোহাই দিয়ে চলছে এসব গ্রাহক হয়রানি। বিষয়টি তারা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিকারের দাবীও জানান। এ বিষয়ে জানার জন্য সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার রবীন্দ্রনাথ দাস এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি সব তথ্য ফোনে দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানান।