পাইকগাছায় অজ্ঞাত কারণে মারা যাচ্ছে সড়কের দু’ধারের গাছ


137 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় অজ্ঞাত কারণে মারা যাচ্ছে সড়কের দু’ধারের গাছ
অক্টোবর ১৩, ২০১৯ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পলাশ কর্মকার, কপিলমুনি ::

খুলনার পাইকগাছার শিববাটি ব্রীজ হতে কাটাখালী বাজার পর্যন্ত প্রধান সড়কের অসংখ্য বিভিন্ন প্রজাতির গাছ অজ্ঞাত কারণে মারা যাচ্ছে। ১০ বছর আগে উপজেলার প্রকৌশলী অধিদপ্তরের উদ্যোগে পাহাড়ী শিরিষ, নিম, বাবলা ও সম্প্রতি কিছু নারিকেলের চারা লাগানো হয়। গত ৫ বছর ধরে পাহাড়ী শিশু শিরিষ গাছগুলো একে একে মারা গেলেও দেখাশুনার দায়িত্বে কাউকে পাওয়া যাচ্ছে না। কয়েক বছর আগে রাস্তার পাশে চাঁদখালী ইউনিয়নের নজরুল ইসলাম সরদার একটি ইটের ভাটা স্থাপন করেন। ভাটা তৈরির পরে এসকল গাছগুলো মারা যাচ্ছে বলে স্থানীয়দের মাধ্যমে জানা যায়। শিববাটি ব্রীজ থেকে কাটাখালী পর্যন্ত প্রায় ৫/৭ কিলোমিটার রাস্তার দু’ধারে এ সব গাছ লাগানো হয়। নারিকেলের চারাগুলো প্রায় সবই মারা গেছে। নিম গাছগুলো টিকে থাকলেও শিশু শিরিষ গাছগুলো একে একে সবই মারা যাচ্ছে।
এ ব্যাপারে স্থানীয় বনবিভাগের কর্মকর্তা প্রেমানন্দ রায় জানান, এলজিইডি কর্তৃপক্ষ কয়েক বছর পূর্বে এ গাছগুলো রোপন করে। কি কারণে গাছগুলো মারা যাচ্ছে তা খতিয়ে দেখার জন্য খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিভাগে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু আজও পর্যন্ত তার কোন ফলাফল পাওয়া যায়নি।