পাইকগাছায় আইনজীবীর বিরুদ্ধে প্রধান শিক্ষককে মারপিট ও লাঞ্চিত করার অভিযোগ


420 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় আইনজীবীর বিরুদ্ধে প্রধান শিক্ষককে মারপিট ও লাঞ্চিত করার অভিযোগ
এপ্রিল ২৭, ২০১৭ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ::
পাইকগাছা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক তার প্রতিপক্ষ মোয়াক্কেল প্রধান শিক্ষককে নিজ চেম্বারে ডেকে নিয়ে মারপিট ও লাঞ্চিত করার অভিযোগে ম্যানেজিং কমিটির জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে উক্ত আইনজীবীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের লক্ষে আগামী শনিবার জরুরী এক সভার আহবান করা হয়েছে বলে স্কুল কতৃপক্ষ জানিয়েছে।
বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় পৌর সদরের সরলস্থ জে.জে আইডিয়াল কিন্ডার গার্টেন স্কুলের সভাপতি এ্যাডঃ মোর্তজা জামান আলমগীর রুলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পরিচালনা পর্ষদের সভায় প্রধান শিক্ষক সাইদুর রহমান বিশ্বাস ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে বলেন, অত্র বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক নির্মলা রায় বেতন ভাতা সংক্রান্ত গত ৩১ জুলাই’১৬ তারিখে বর্তমান আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ শেখ তৈয়েব হোসেন নূরের মাধ্যমে তাকে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করেন। ১৭ আগস্ট’১৬ তারিখে আইনজীবী মুজিবর রহমানের মাধ্যমে উক্ত নোটিশের জবাব প্রদান করা হয়। ইতোমধ্যে শিক্ষক নির্মলার সাথে প্রধান শিক্ষকের উক্ত বিষয়টি নিস্পত্তি হয়েছে বলে তারা জানান। ঘটনার দিন গত ২৪ এপ্রিল দুপুরের আদালতের কাজ সেরে তার আইনজীবী মুজিবুর রহমানের চেম্বারে যাওয়ার পথে প্রতিপক্ষ আইনজীবী এ্যাডঃ শেখ তৈয়েব হোসেন নূর প্রধান শিক্ষককে তার চেম্বারে ডেকে নিয়ে শিক্ষক নির্মলার লিগ্যাল নোটিশে উল্লেখিত টাকা দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এ সময় শিক্ষক নির্মলার সাথে বিষয়টি নিয়ে আমার মীমাংসা হয়েছে মর্মে বলা হলেও তিনি উত্তেজিত হয়ে তাকে এলোপাতাড়ীভাবে চড়, কিল, ঘুষি, লাথি মারতে থাকে। এ সময় আমি মাটিতে পড়ে গেলে আমার বুকের উপর সজোরে লাথি মারতে থাকলে সেখান থেকে উঠে আইনজীবী মুজিবর রহমানের চেম্বারে আশ্রয় নেয়। সেখানেও গিয়েও তাকে অনুরূপভাবে মারপিট করে। এক পর্যায়ে পরে খবর পেয়ে বিদ্যালয়ের সহকর্মীরা তাকে উদ্ধার করে ভ্যানযোগে নেওয়ার সময়ও সেখানেও আইনজীবী নূর তার কানে থাপ্পড় মারে। এতে গুরুতর আহত হলে সহকর্মীরা তাকে প্রাক্তণ উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডাঃ অনুপ কুমার দাশের নিকট চিকিৎসা করান। এ ব্যাপারে শিক্ষক নির্মলা রায় জানান, লিগ্যাল নোটিশের ব্যাপারে প্রধান শিক্ষকের সাথে ইতোমধ্যে আমার প্রাথমিক মীমাংসা হয়েছে। এ নিয়ে গত সোমবার প্রধান শিক্ষকের সাথে যে ঘটনা ঘটেছে তা অত্যন্ত দুঃখজনক। এ ব্যাপারে আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ শেখ তৈয়েব হোসেন নূর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমাদের মোহরার এক মেয়েকে চাকরী দেয়ার কথা বলে শিক্ষক সাইদুর রহমান টাকা নেয়। এ ঘটনায় তাকে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করা হয়। কিন্তু তিনি টাকা না দিয়ে বিভিন্ন সময়ে তালবাহানা করে আসছিল। এ নিয়ে ঘটনার দিন কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে এমন ঘটনা ঘটে বলে তিনি জানান। আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাডঃ পংকোজ কুমার ধর বলেন, এ ব্যাপারে আমার কাছে কেউ কোন অভিযোগ করেনি।