পাইকগাছায় আ’লীগের দু’পক্ষের সভা আহবান, প্রশাসনের ১৪৪ ধারা জারি


228 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় আ’লীগের দু’পক্ষের সভা আহবান, প্রশাসনের ১৪৪ ধারা জারি
সেপ্টেম্বর ৫, ২০২০ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::

খুলনার পাইকগাছার গড়ইখালীতে আওয়ামীলীগ ও যুবলীগ-ছাত্রলীগ একই সময়ে পাশাপাশি সভা আহবান করায় স্থানীয় প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করে। শুক্রবার বিকালে উপজেলার গড়ইখালী ইউনিয়নের কুমখালী মাধ্যমিক কাম সাইক্লোন সেল্টারে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মতবিনিময় সভার আহবান করে। অপরদিকে গড়ইখালী আলমশাহী ইনষ্টিটিটিউট-এ স্থানীয় যুবলীগ, ছাত্রলীগ সভা আহবান করে। আইনশৃঙ্খলা বিঘ্নিত ও করোনার কারনে স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন হতে পারে এমন আশংকায় পৃথক দু’টি সভাস্থলে ১৪৪ ধারা জারি করে স্থানীয় প্রশাসন। এদিকে কুমখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় মিলনায়তনে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অর্দ্ধেন্দু শেখর মন্ডল এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি কামরুজ্জামান জামাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ শেখ মোহাম্মাদ শহীদ উল্লাহ, কয়রা উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম শফিকুল ইসলাম, পাইকগাছা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুল হাসান টিপু, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ রশীদুজ্জামান, জেলা যুবলীগ নেতা জামিল খান, সরদার জাকির হোসেন, বিধান চন্দ্র রায়, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন ইমু। এদিকে কুমখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় মিলনায়তনে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অর্দ্ধেন্দু শেখর মন্ডল এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি কামরুজ্জামান জামাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ শেখ মোহাম্মাদ শহীদ উল্লাহ, কয়রা উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম শফিকুল ইসলাম, পাইকগাছা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুল হাসান টিপু, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ রশীদুজ্জামান, জেলা যুবলীগ নেতা জামিল খান, সরদার জাকির হোসেন, বিধান চন্দ্র রায়, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন ইমু।

বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাক মলঙ্গী, ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বিশ্বাস, কওছার আলী জোয়াদ্দার, সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুনসুর আলী গাজী, আওয়ামীলীগ নেতা সরদার গোলাম মোস্তফা, জিএম ইকরামুল ইসলাম, শেখ রাশেদুল ইসলাম রাসেল, এসএম রেজাউল হক, বিজন বিহারী সরকার, গোলাম রব্বানী, এসএম আয়ুব, বিএম শফি, গাজী মিজান, অধ্যক্ষ শিমুল বিল্লাহ, যুবলীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমান, শেখ আবুল কালাম আজাদ, প্রণব কান্তি মন্ডল, সরদার জালাল উদ্দীন, শেখ রাজু আহমেদ, বাবুল হোসেন বাবু গাইন, কামরুল গাইন, সুকুমার ঢালী, দেবব্রত রায়, পরেশ মন্ডল, বাবুলাল বিশ্বাস, এজাহার আলী, মুজিবর ফকির, ছাত্রলীগ নেতা এসএম মসিয়ার রহমান, তানজীম মুস্তাফিজ বাচ্চু, সাব্বির হোসেন, ফাইমিন, আরিফ জয়, মাসুদ পারভেজ রাজু ও হামিম সানা। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী, ওসি এজাজ শফি ও ওসি (তদন্ত) আশরাফুল আলম।

বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাক মলঙ্গী, ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বিশ্বাস, কওছার আলী জোয়াদ্দার, সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুনসুর আলী গাজী, আওয়ামীলীগ নেতা সরদার গোলাম মোস্তফা, জিএম ইকরামুল ইসলাম, শেখ রাশেদুল ইসলাম রাসেল, এসএম রেজাউল হক, বিজন বিহারী সরকার, গোলাম রব্বানী, এসএম আয়ুব, বিএম শফি, গাজী মিজান, অধ্যক্ষ শিমুল বিল্লাহ, যুবলীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমান, শেখ আবুল কালাম আজাদ, প্রণব কান্তি মন্ডল, সরদার জালাল উদ্দীন, শেখ রাজু আহমেদ, বাবুল হোসেন বাবু গাইন, কামরুল গাইন, সুকুমার ঢালী, দেবব্রত রায়, পরেশ মন্ডল, বাবুলাল বিশ্বাস, এজাহার আলী, মুজিবর ফকির, ছাত্রলীগ নেতা এসএম মসিয়ার রহমান, তানজীম মুস্তাফিজ বাচ্চু, সাব্বির হোসেন, ফাইমিন, আরিফ জয়, মাসুদ পারভেজ রাজু ও হামিম সানা। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী, ওসি এজাজ শফি ও ওসি (তদন্ত) আশরাফুল আলম।

#