পাইকগাছায় ঈদকে সামনে রেখে শেষ মুহুর্তে ব্যস্ত সময় পার করছে দর্জিরা


1053 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় ঈদকে সামনে রেখে শেষ মুহুর্তে ব্যস্ত সময় পার করছে দর্জিরা
জুলাই ১২, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পাইকগাছা প্রতিনিধি :
পাইকগাছায় ঈদকে সামনে রেখে শেষ মুহুর্তে ব্যস্ত সময় পার করছে দর্জি কারিগররা। বৈরী আবহাওয়া শেষে শুস্ক আবহাওয়া বিরাজ করায় দর্জির দোকানগুলোতে উপচে পড়া ভিড় পরিলক্ষিত হচ্ছে। ঈদের আগে ডেলিভারী নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন অনেকেই। অনেক কারিগর নতুন করে অর্ডার নিচ্ছেন না বলে জানা গেছে।
সূত্র মতে, মুসলমানদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর আর মাত্র ৪/৫ দিন বাকী রয়েছে। এরই মধ্যে গত কয়েক দিনের ভারী বর্ষণে মারাত্মকভাবে ব্যাহত হয় ঈদের কেনাকাটা। লোকজন বাড়ী থেকে বের হতে না পারায় শেষ মুহুর্তের কেনাকাটা ও পোশাক তৈরীর কাজ সম্পন্ন করতে পারেননি। গত দু’দিন শুষ্ক আবহাওয়া বিরাজ করায় জমজমাট হয়ে উঠেছে ঈদ বাজার। অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনাকাটার পাশাপাশি শেষ মুহুর্তের পোশাক তৈরীর কাজ সেরে নিচ্ছেন অনেকেই। এ জন্য বর্তমানে ব্যস্ত সময় পার করছেন দর্জি কারিগররা।
পাইকগাছা পৌর সদরে প্রায় ৪০টির মত দর্জির দোকান (টেইলর্স) রয়েছে। প্রত্যেকটি দোকানের কারিগররা ব্যস্ত সময় পার করায় যেন কারও দম ফেলার সময় নেই। মেয়েদের থ্রিপিচ, বোরখা, ব্লাউজ, পেটিকোট, পুরুষের পাঞ্জাবী, প্যান্ট, শার্টসহ অন্যান্য পোশাক তৈরী করতে প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত কাজ করেও অর্ডারকৃত পোশাকের ঈদের আগে ডেলিভারী নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন কারিগররা। স্মার্ট ফ্যাশন হাউজের মাস্টার মাহতাব উদ্দীন ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকমকে জানান, বর্তমানে নতুন করে কোন অর্ডার নেয়া হচ্ছে না। এবারের ঈদে থ্রিপিচের মুজুরী মূল্য ২৫০, পেটিকোট ৪০ ও ব্লাউজের মূল্য ৫০ টাকা নেয়া হচ্ছে বলে কারিগর নাজমা বেগম জানান। পুরুষের প্যান্ট ৩৫০, শার্ট ২৫০, পাঞ্জাবীর সেট ৫০০ টাকা বলে জানান কারিগর শিখা রাণী মন্ডল।