পাইকগাছায় ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ৪ শতাধিক নার্সারী বাগানের ব্যাপক ক্ষতি


307 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ৪ শতাধিক নার্সারী বাগানের ব্যাপক ক্ষতি
নভেম্বর ১৭, ২০১৯ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

সরকারি সাহায্যের আবেদন

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::

খুলনার পাইকগাছায় অতি সম্প্রতি প্রবল ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ৪ শতাধিক নার্সারী বাগানের ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। ফলে ব্যাংক ও এনজিও থেকে ঋণ গ্রহণকারী শতাধিক নার্সারী মালিক বেকারত্ব হওয়ার আশংকায় ভুগছে। নতুনভাবে নার্সারী বাগান গড়ে তুলতে মালিক সমিতি সাহায্যের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে আবেদন করেছে।

সরেজমিন ও আবেদনে দেখা যায়, গত ১০ নভেম্বর ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে উপজেলার গদাইপুরের ৪ শতাধিক নার্সারী বাগান ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। যেখানে রয়েছে কমলা লেবু, লিচু, জাম, জামরুল, আম, কাঁঠাল সহ বিভিন্ন প্রজাতির ফলজ, বনজ, ঔষধী, ফুল ও ফলের চারা। বিশেষ করে নার্সারীতে থাকা হাজার হাজার ছোট ছোট নতুন রেনু ও কলম চারাগুলো নষ্ট হয়ে গেছে। যাতে প্রায় ৬০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়। এলাকায় ৭০/৮০ বিঘা জমি লীজ নিয়ে বেকার যুবকরা গড়ে তুলেছে ৪শতাধিক নার্সারী বাগান। নার্সারী মালিক সমিতির সভাপতি আক্তারুল ইসলাম জানান, প্রতি বছর পাইকগাছার গদাইপুরের এ সকল নার্সারীর চারা ও কলম দেশের বিভিন্ন স্থানে চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রপ্তানী করা হয়। যা চলতি বছর নতুনভাবে চারা ও কলম চাষ না হলে আগামী বছরে এর উপর ব্যাপক প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে, ব্যাংক ও এনজিও থেকে ক্ষুদ্র ঋণ গ্রহণকারী শতাধিক নার্সারী মালিক ক্ষয়-ক্ষতির কারণে হতাশায় ভুগছে। কিছুটা ক্ষতি পুষিয়ে নিতে উপজেলা নার্সারী মালিক সমিতি সরকারী সাহায্যের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও কৃষি অফিসারের কাছে লিখিত আবেদন করেছেন।

#