পাইকগাছায় পুলিশের এসআই ক্লোজড : টাকা ছিনতাইকারীরা রয়েছে ধরাছোয়ার বাইরে !


344 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় পুলিশের এসআই ক্লোজড : টাকা ছিনতাইকারীরা রয়েছে ধরাছোয়ার বাইরে !
অক্টোবর ৪, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পাইকগাছা প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনি ফাঁড়ি পুলিশের হাতে আফিল উদ্দিন নামের এক চোরাকারবারীকে আটক অতঃপর নজরানায় মুক্তর ঘটনায় সংশ্লিষ্ট এসআই হাসমত আলীকে জেলা পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশেরই একটি সূত্র। এদিকে আফিলকে আটকের পর পুলিশ হেফাজত থেকে তার কাছে থাকা কথিত টাকার ব্যাগ ছিনতাই ঘটনার মোটিভ উদঘটিত হয়নি ঘটনার এক সপ্তাহ অতিবাহিত হলেও। গত ১৯ সেপ্টেম্বর রাত ৮টার দিকে ৪টি প্লাস্টিকের বস্তা ভর্তি জিরা, লবঙ্গ, এলাচ ও পলিথিনসহ সদরের একটি ফার্মেসির সামনে থেকে তাকে আটক করে এস আই হাসমতের নেতৃত্বে একদল পুলিশ।
সূত্র জানায়, তাকে আটকের পর অতি উৎসাহী বিভিন্ন মহলের লোকজন দফায় দফায় ভিড় জমায় পুলিশ ফাঁড়িতে। একপর্যায়ে তাদের কয়েক জন মুচলেকায় তাকে ছাড়িয়ে নিতে সক্ষম হয়। এর আগে কৌশলে ঐ চক্র আটক আফিলের কাছ থেকে তার টাকার ব্যাগটি আমানত রাখার কথা বলে হাতিয়ে নিয়ে আত্মসাৎ করে। পরে আফিল ছাড়া পেলেও ফিরে পায়নি তার আমানত রাখা টাকার ব্যাগটি। এব্যাপারে সে ঐ চক্রের সদস্যদের সাথে কথা বললে তারা তাকে উল্টো মামলায় ফাঁসানোর হুমকি ও আরো টাকার দাবি করে। পরে ফাঁড়ির কথিত ক্যাশিয়ার কাম দালাল মোজাফারের মাধ্যমে আরো ৫ শ’টাকা নিয়ে তাকে ঐ রাতেই গাড়িতে তুলে দেয়া হয়।
অন্যদিকে ততক্ষণে খবরটি চাউর হয়ে যায় বাজারময়। যার বরাদ দিয়ে পরের দিনই বিভিন্ন পত্রিকান্তে পুরো বিষয়টি তুলে ধরে সংবাদ প্রকাশিত হয়। যেখানে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে পুলিশের উর্ধ্বতন এক কর্মকর্তার বক্তব্য তুলে ধরা হয়। এরপর সংশ্লিষ্ট এসআই হাসমতকে ক্লোজড করা হয়। অনেকের ধারণা, বহিরাগতরা সমন্বয়কারীর ভূমিকায় থেকে পুলিশ ফাঁড়ির মত যায়গা থেকে টাকা ছিনতাইয়ের মত অপকর্ম করলেও তার সাজা ভোগ করতে হয়েছে নিরাপরাধপ্রায় পুলিশকে। তবে ঘটনার মূলহোতারা এখনো ধরাছোয়ার বাইরে থাকায় এলাকাবাসীর মনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে যে, কি এমন যাদু জানে তারা? আর তাদের খুঁটির জোরটাই বা কোথায়? এব্যাপারে তদন্তপূর্বক প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করে তাদেরকে আইনের আওতায় নেয়ার জন্য এলাকাবাসী প্রশাসনের উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।