পাইকগাছায় বিভিন্ন মামলার আসামী হালিম শিকারীর বিরুদ্ধে গণস্বাক্ষরিত অভিযোগ এলাকাবাসীর


134 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় বিভিন্ন মামলার আসামী হালিম শিকারীর বিরুদ্ধে গণস্বাক্ষরিত অভিযোগ এলাকাবাসীর
মার্চ ৪, ২০২১ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::

পাইকগাছার গড়ইখালীর হালিম শিকারী (৪৪)। তার নামে পাইকগাছা, কয়রা ও ডুমুরিয়াসহ বিভিন্ন থানায় অস্ত্র-গুলি, ডাকাতি, বন আইন ও চাঁদাবাজীসহ বিভিন্ন ধারায় ১০টি মামলা, ৯ টি জিডি ও চেয়ারম্যানের দপ্তরে কয়েকটি অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি অস্ত্র মামলায় জামিনে এসে পুনরায় চাঁদাবাজীসহ নানা অপকর্মে জড়িয়ে পড়ায় এলাকাবাসী তার শাস্তির দাবীতে পাইকগাছা থানায় গণস্বাক্ষরিত অভিযোগ করেছে।

উপজেলার গড়ইখালী ইউপি’র হোগলার চক গ্রামের হালিম শিকারী। তিনি একটি অস্ত্র মামলায় জামিনে এসে এলাকায় আবারও ত্রাস সৃষ্টি করছে। শুরু করেছে চাঁদাবাজী।ফলে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী বিক্ষুব্ধ হয়ে তার বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার বিকেলে পাইকগাছা থানায় গণস্বাক্ষরিত অভিযোগ করেছে। তার নামে তিনটি অস্ত্র, তিনটি বন আইন, একটি ডাকাতি সহ পাইকগাছা থানাসহ কয়েকটি থানায় দশটি মামলা,নয়টি জিডি ও গড়ইখালী ইউপি চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে কয়েকটি লিখিত অভিযোগ আছে বলে অভিযোগে দেখা যায়।এব্যাপারে স্থানীয় লতিফ সরদার বলেন, হালিম শিকারী একটি অস্ত্র মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি। কয়েকদিন পর জামিনে এসে খুব বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। আমরা তার শাস্তি চাই। ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বিশ্বাস জানান, হালিম শিকারীর বিরুদ্ধে অভিযোগের অন্ত নেই। সে কয়েকবার অস্ত্র ও গুলিসহ পুলিশের কাছে হাতে নাতে ধরা পড়েছে। এ বিষয়ে হালিম শিকারী বলেন, আমার নামে ১০টি মামলা নয়, ২০টি মামলা রয়েছে। নাহলে আরেকটি মামলা হবে। তবে আমাকে জেলে কি রাখতে পারবে? ওসি এজাজ শফী জানান, গড়ইখালী থেকে শত শত লোক থানায় এসে গণস্বাক্ষরিত লিখিত অভিযোগ করেছে। তাদের বিক্ষোভ করতে দেয়া হয়নি। তবে তদন্ত পুর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দেয়া হয়েছে বিক্ষুব্ধদের।