পাইকগাছায় ভারী বর্ষণে বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত : ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি


97 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় ভারী বর্ষণে বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত : ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি
আগস্ট ১৮, ২০১৯ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস এম আলাউদ্দীন সোহাগ ::

পাইকগাছায় টানা ভারী বর্ষণে পৌর সদর সহ উপজেলার বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ভেসে একাকার হয়ে গেছে অসংখ্য চিংড়ি ঘের। অতিরিক্ত পানিতে তলিয়ে গেছে বিভিন্ন এলাকার রাস্তা-ঘাট। চরম দূর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।

সূত্রমতে, টানা কয়েকদিন ধরে এলাকায় অব্যাহত রয়েছে বৃষ্টিপাত। এর মধ্যে শনিবার দিবাগত ভোর রাত থেকে শুরু হয় ভারী বর্ষণ। টানা কয়েক ঘন্টার ভারী এ বর্ষণে প্লাবিত হয় বিস্তির্ণ এলাকা। মোঃ আব্দুল গফফার মোড়ল জানান, ভারী বর্ষণে পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন রাস্তা-ঘাট তলিয়ে গিয়ে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। আইয়ুব আলী জানান, ৫নং ওয়ার্ডের অসংখ্য বাড়ি ঘর জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। শফিকুল ইসলাম মোড়ল জানান, উপজেলা পরিষদ চত্বর সহ ৬নং ওয়ার্ডের পানি নিষ্কাষন ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর জানান, আমি ভোরে ভারী বর্ষণের মধ্যে গোটা পৌর এলাকা ঘুরে ঘুরে পানি নিষ্কাষনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছি। ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেন লিটন জানান, গদাইপুর ইউনিয়নের অসংখ্য কাঁচা ঘর-বাড়ি ধ্বসে পড়েছে। প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম কেরু জানান, গড়ইখালীর অসংখ্য চিংড়ি ঘের তলিয়ে গিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আওয়ামী লীগনেতা জিএম ইকরামুল ইসলাম জানান, মৌখালী, ফতেপুর, ধামরাইল, গজালিয়া, ফেদুয়ারাবাদ, ঢেমশাখালী, কাটাবুনিয়া, কলমি বুনিয়া ও উড়াবুনিয়া সহ চাঁদখালী ইউনিয়নের বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত হওয়ায় সাধারণ মানুষ চরম দূর্ভোগে রয়েছে। বাঁকা, কাটিপাড়া, শ্রীকণ্ঠপুর, রাড়–লী মালোপাড়া সহ রাড়–লী ইউনিয়নের বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত হয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে রাড়–লী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ গোলদার জানান।